‘সভ্যতার বেহুদা হালচাষ ও শাহী বেদেনামা’

ঢাকা, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২ | ১৮ আশ্বিন ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

‘সভ্যতার বেহুদা হালচাষ ও শাহী বেদেনামা’

শাহ আলম মিয়া
🕐 ১:১১ অপরাহ্ণ, জুন ০৩, ২০২১

‘সভ্যতার বেহুদা হালচাষ ও শাহী বেদেনামা’

লোম কাঁটা মিহি হিমেল হাওয়ার পতপত শব্দসুর। মেঘনার জলপেট চিরে দক্ষিণে ধাই ধাই করে চলছে বোট। আবছা অন্ধকার। পশ্চিমাকাশে মাথা তোলা জ্যোৎস্নাপতি। মেঘনার জলের সরলরেখায় উগরে পড়ছে শশীঠাকুরের প্রেমাঞ্জলি। যেন ঢেউয়ে ঢেউয়ে জল-জোছনার জলকেলি লীলা। এ রঙ্গকীয়া দর্শনে বেহুঁশ কচুরিপানাও দ্রুতই ডুব সাঁতারে পথ পাল্টে নেয়। সম্প্রতি মা ইলিশ রক্ষায় অভিযান শেষে ফিরছি স্পিডবোটে। বোট সম্মুখে অগ্রসরমান।

নরসিংদীর করিমপুর বাজারের কাছাকাছি আসতেই কূল ঘেঁষা তহশীল অফিসের বিশালাকার মাঠজুড়ে মৃদু টেপাটেপি-ঢেপাঢিপি লালচে হলুদ আলো। গোটা বিশেক আলো হবে। কৌতূহলবশত গতি কমাতে বললাম। দ্রতই পরিষ্কার হলো ওই আলোকিত অন্ধকার। ২০-২৫টি টাব্বর পাতানো। ওহহ। এত বেদে বহর।

কিছুটা বিস্ময় ও অজানা আগ্রহ থেকে বোট ভেড়ানো হলো। বহরের দিকে এগিয়ে যেতেই কে যেন আগেই বহরে গিয়ে বেদে সর্দারকে জানাল এসিল্যান্ড স্যার এসেছেন আপনাদের সঙ্গে কথা বলবেন। শুনেই বেদে সর্দার হন্তদন্ত হয়ে এগিয়ে এলেন।
- বললেন স্যার আপনি এসেছেন আমরা খুছি। আমরা বেদে। জায়গা নাই। তাই আপনার জায়গায় টাব্বর (তাবু) পেতেছি।
- আমি বেমালুম। দৃষ্টি আমার সর্দারের টাব্বরে। সর্দারনী কেমন আছেন।
- বালই আচি। আফনি?
- আমরাও ভালো। ভিতরে আসতে পারি?
- আসেন। বসেন।
- সর্দারনীর ডানে ষোড়াশী কন্যা। বামে উঠতি দুই যুবক। সকলেই রাতের ভোজনে ছিল। আমার প্রবেশে কিছুটা জড়োসড়ো। সাদা ভাত। পাতলা স্যালস্যালে ডাল। চিকন কাটা আলু দিয়ে ছোট মাছের বিরান। পরিতৃপ্তির সঙ্গে খাওয়া হলো।
বেদে :
ওরা বেদে। সকলেরই অতি পরিচিতজন। তবে কাছেরও নয়, অতি দূরেরও নয়। সম্পর্ক নেই। কিন্তু দৃষ্টি সীমায় ঘুরে ফিরে। সামাজিক ভাববিনিময় ঝাপসা-অবয়বহীন। প্রান্তিক। যাযাবর গোষ্ঠী। এরা ভূমিহীন। দলবদ্ধভাবে বসবাস। বাহন নৌকা। জন্ম-বিয়ে-রঙ্গ-মৃত্যু সবি নৌকায়। এজন্য তাদের জলের জিপসিও বলা হয়। সাপের খেলা দেখানোর জন্যই এরা বেশি জনপ্রিয়। বেদেদের অঞ্চলভেদে বাদিয়া, বাইদ্যা বা বইদ্যানী নামেও ডাকা হয়।
ধর্মাচার :
দেশের ৯৯% বেদে মুসলিম। ধর্মাচার মিশ্র। কেউ পীরের অনুসারী, কেউ মনসা বা বিষহরির ভক্ত। আনুষ্ঠানিক ধর্মে সাধারণত এদের আগ্রহ কম। হিন্দু দেবদেবীর স্তূতি করে, বিভিন্ন পার্বণেও অংশ নেয়।
পুনশ্চ :
সভ্যতার বেহুদা হালচাষে অস্তিত্ব সংকটে এ সম্প্রদায়। চাই রাষ্টীয় পরিকল্পনা, নীতি ও সমব্যথিতা।

উপদেষ্টা, এগারজন
নরসিংদী

 
Electronic Paper