সর্বত্র বাংলা ভাষার ব্যবহার চাই

ঢাকা, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল ২০২০ | ২০ চৈত্র ১৪২৬

সর্বত্র বাংলা ভাষার ব্যবহার চাই

সাব্বির হাসান ১:২৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০

print
সর্বত্র বাংলা ভাষার ব্যবহার চাই

বাংলা ভাষা বিকাশের ইতিহাস ১৩শ বছরের পুরনো। চর্যাপদ এ ভাষার আদি নিদর্শন। বাংলাদেশের আপামর সব জনগণকে তাদের নিজেদের ভাষায় সব রাষ্ট্রীয় কাজে, ব্যক্তিগত জীবনে, সরকারি আধা সরকারি অফিসগুলোতে অংশগ্রহণের নিশ্চয়তা দিয়ে জনগণের ক্ষমতায়নের পথে ঔপনিবেশিক ভাষিক বাধা দুর করার গুরুত্ব অপরিসীম।

সর্বক্ষেত্রে বাংলা ভাষার ব্যবহার নিশ্চিত করতে ১৯৮৭ সালের ৮ই মার্চ বাংলা ভাষা প্রচলন আইন করা হলেও এখনো তার যথাযথ প্রয়োগ হয়নি। ১৯৪৭ থেকে ১৯৫২ খ্রিস্টাব্দে পূর্ব বাংলার সংগঠিত বাংলা ভাষা আন্দোলন এই ভাষার সাথে বাঙালির অস্তিত্বের যোগসূত্র স্থাপন করেছে।

১৯৫২ খ্রিস্টাব্দের ২১ শে ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবাদী ছাত্র ও আন্দোলনকারীরা সংখ্যাগরিষ্টের মাতৃভাষা বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার দাবিতে নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেন। ১৯৫২’র ভাষা শহীদদের সংগ্রামের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৯৯ খ্রিস্টাব্দে ইউনেস্কো ২১ ফেব্রুয়ারিতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণা করেন। বর্তমানে ১৯৩টি দেশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়।

জাতি হিসেবে একমাত্র বাঙালির এই ভাষার জন্য প্রাণ দিয়েছির বাঙালির এই অবদানকে স্বীকার করে তারা দিবসটি একুশে ফেব্রুয়ারিতে একযোগে পালন করে। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হলে একমাত্র রাষ্ট্রভাষা হিসেবে বাংলা ভাষা প্রবর্তিত হয়। ১৯৭৫ সালের ১২ই মার্চ রাষ্ট্রপতি থাকাকালীন শেখ মুজিবুর রহমান সরকারি অফিস-আদালত এর দাপ্তরিক কাজে বাংলা ভাষাকে প্রচলনে সরকারি প্রজ্ঞাপন জারি করেন।

আজকাল আমাদের দেশে যত সামাজিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়, যেমন বিয়ে, জন্মদিন, বৌভাত, গায়ে হলুদ সব আমন্ত্রণপত্র ইংরেজিতে লেখা হয় এবং সেটা শিক্ষিত অর্ধশিক্ষিত নির্বিশেষে। আমাদের প্রকৃত সদিচ্ছার অভাব আছে এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই। কারণ হচ্ছে আধুনিক ও বহিঃবিশ্বের প্রভাব। তাই আমাদের একটি সুস্পষ্ট ভাষানীতি প্রয়োজন।

বর্তমানে আমরা দেখতে পাই রেডিও যে ভূমিকা পালন করছে, বিশেষ করে এফএম রেডিও বা কমিউনিটি রেডিও। সেখানে বিকৃতভাবে ইংলিশ ও বাংলা মিশ্রণ করে দর্শকদের মাঝে উপস্থাপন করা হচ্ছে। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ডিজে পার্টির নামে চলছে ভাষার বিকৃতি।

তাই শুধু ভাষার মাসে নয় সব সময় সর্বদা সকল কাজে আমরা বাংলা ভাষার ব্যবহার চাই।

সাধারণ সম্পাদক
মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রেস ক্লাব