বায়ুদূষণ রুখতে হবে

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২ জুন ২০২০ | ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বায়ুদূষণ রুখতে হবে

আদিল হোসেন ২:৫৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৭, ২০১৯

print
বায়ুদূষণ রুখতে হবে

বাতাস ছাড়া মানুষ বেঁচে থাকতে পারে না। তবে তা হতে হবে নির্মল। নির্মল বায়ু যেমন মানুষকে বাঁচাতে পারে, তেমনি দূষিত বায়ু মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। প্রকৃতির দান এই অমূল্য সম্পদ নির্মলই থাকে। কিন্তু মানুষই জেনে না জেনে তাকে দূষিত করছে। এর প্রতিকারে পরিবেশ আইন থাকলে তা তোয়াক্কা করছে না কেউ।

সরজমিনে ঘুরে নরসিংদীর ১১ জন সমন্বয়ক খন্দকার শাহিন জানিয়েছেন, বাতাস ছাড়া মানুষ বেঁচে থাকতে পারে না। তবে তা হতে হবে নির্মল। নির্মল বায়ু যেমন মানুষকে বাঁচাতে পারে, তেমনি দূষিত বায়ু মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে। প্রকৃতির দান এই অমূল্য সম্পদ নির্মলই থাকে। কিন্তু মানুষই তাকে দূষিত করছে এমনি চিত্র দেখা গেছে নরসিংদীতে। বিশেষ করে নরসিংদীর শিল্প শহর সদর উপজেলার মাধবদীতে ক্রমাগত বেড়েই চলছে বায়ুদূষণ। দেখা গেছে মাধবদী শহরের পাশ্ববর্তী নুরালাপুর, মহিষাশুড়া, কাঁঠালিয়া ইউনিয়নের গ্রামে গড়ে উঠছে শিল্প কারখানা ও বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান। এতে ডাংই অ্যান্ড সাইজিং মিলগুলো ব্যবহার করছে ব্রয়লার। এসব ব্রয়লারের পানি প্রচুর তাপমাত্রা তৈরির জন্য ব্যবহার করছে। পুরনো হচ্ছে জুট, কাঠ, কয়লা ইত্যাদি।

এছাড়া ইটভাটা ও সাইজিং মিলের নির্দিষ্ট ফিল্টারের কালো ধোঁয়ায় দূষণ হচ্ছে পরিবেশ ও বায়ু। এছাড়া মাধবদী বিভিন্ন মিলের মালপত্র সরবরাহ করার জন্য ব্যবহার করা হয় নছিমন, করিমনের ইঞ্জিনের কালো ধোঁয়া, নিয়ন্ত্রণহীন গতিতে চলাচলে উড়ছে ধূলিকণা, ইট ভাটার ধোঁয়া- এসব বায়ুদূষণের জন্য দায়ী। বিশেষ করে এ শহরে বেশি কালো ধোঁয়া ছড়ায় নছিমন ও ব্রয়লারযুক্ত শিল্প প্রতিষ্ঠান, যা বায়ুদূষণের অন্যতম কারণ হিসেবে চিহ্নিত রয়েছে বলে জানান পরিবেশবিদরা।

তাছাড়া বর্তমান নরসিংদীর মাধবদী শহরে বড় বড় বিল্ডিং করার কারণে বাতাসে অক্সিজেনের পরিমাণ ব্যাপক হারে কমে যাচ্ছে। এতে বাতাসে দূষিত পদার্থের পরিমাণ বেড়েই চলেছে।

এদিকে কালো ধোঁয়া ছড়িয়ে সারা শহর ও গ্রামগুলোতে ঘুরে বেড়াচ্ছে। কালো ধোঁয়া ও ধূলিকণাযুক্ত দূষিত বায়ু থেকে মানুষ নিঃশ্বাস নিতে পারছে না। রাস্তায় মাক্স না বেঁধে হাঁটা যায় না। তাছাড়া কতক্ষণ হাঁটলেই চোখ দিয়ে দর দর করে পানি পড়তে থাকে। অনেক সময় দেখা যায় নাক দিয়ে রক্ত ঝরছে। এর কারণ শ্বাসনালিতে দূষিত সীসাযুক্ত বায়ু গিয়ে ঘা বা ক্ষতের সৃষ্টি করেছে। এ কারণে বিভিন্ন রোগে আক্রান্তসহ প্রতিবন্ধী শিশু জন্মের হার বেড়ে যাওয়ার আশংকা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকরা।

শিল্প প্রতিষ্ঠানের মহাজনরা জানিয়েছেন, বাংলাদেশের মধ্যে বৃহত্তর কাপড়ের আমদানি ও রপ্তানি স্থান মাধবদী, নরসিংদী। এ শহরের পাশাপাশি গ্রামেও সুতা সাইজিং, কাপড় প্রসেসিং ও ব্রয়লার করতে হয়। আর যেসব শিল্প প্রতিষ্ঠানে গ্যাস সংযোগ নেই, তাদের জ্বালানি হিসেবে কাঠ, জুট কাপর, কয়লা, কেরোসিন পুড়িয়ে পানি গরম করতে হচ্ছে। এতে খরচও অনেক বেশি বহন করতে হয় মিল মালিকদের। সরকার যদি শিল্প প্রতিষ্ঠানে গ্যাস সংযোগ দেওয়ার ব্যবস্থা করে, তাহলে পরিবেশ ও বায়ুদূষণ অনেকটা হ্রাস পাবে।

সদস্য, এগারজন
নরসিংদী