টিভিতে মাধ্যমিকের জন্য শিক্ষকদের পাঠদান

ঢাকা, বুধবার, ৮ এপ্রিল ২০২০ | ২৪ চৈত্র ১৪২৬

টিভিতে মাধ্যমিকের জন্য শিক্ষকদের পাঠদান

শিক্ষা প্রতিবেদক ১২:৩২ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৪, ২০২০

print
টিভিতে মাধ্যমিকের জন্য শিক্ষকদের পাঠদান

করোনাভাইরাসে একে একে বন্ধ পড়েছে দেশের প্রতিটি প্রতিষ্ঠান। বাদ থাকেনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও। কবে নাগাত এই ভাইরাস মুক্ত হবে বাংলাদেশ তার কোন নিশ্চয়তা নেই। প্রতিটি মূহুর্ত পর্যবেক্ষন করছে সরকার। তবে লম্বা সময় বন্ধ থাকার কারণে বিদ্যালয়ের পাঠদান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে দেশের শিক্ষার্থীরা। আর তাই পাঠদানের বিকল্প পথ বেচে নিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক অধিদফতর(মাউশি)।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের দিনগুলোতে সংসদ টেলিভিশন চ্যানেলের মাধ্যমে সেরা শিক্ষকদের রেকর্ডিং করা ক্লাস প্রচার করা হবে। মাউশি থেকে জানা যায়, আজ পাঠদানের পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শুরু করা হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মাউশির পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) মো. শাহেদুল খবির চৌধুরী। তিনি গতকাল মিডিয়াকে জানান, করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকা দিনগুলোতে সংসদ টেলিভিশন চ্যানেলে ক্লাস নেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, এ লক্ষ্যে গত শুক্রবার থেকে ঢাকার শীর্ষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর সেরা শিক্ষকদের মাধ্যমে ক্লাস কার্যক্রম রেকর্ডিং শুরু করা হয়েছে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টার মধ্যে এটি সম্প্রচার করা হবে। মঙ্গলবার পরীক্ষামূলক সম্প্রচার করা হবে। তবে কখন তা প্রচার করা হবে সে সময়টি এখনও নির্ধারণ করা হয়নি।

শাহেদুল খবির আরও বলেন, আমরা চেষ্টা করছি শিক্ষার্থীরা তার নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেভাবে ক্লাস করে থাকে তার আদলে রেকর্ডিং ক্লাস তৈরি করার চেষ্টা করা হয়েছে। এতে প্রতিদিন শিক্ষার্থীদের হোমওয়ার্ক (বাসার কাজ) দেয়া হবে। পরদিনের ক্লাসে আবার তা মূল্যায়ন করা হবে। দ্রুত পরীক্ষামূলক সম্প্রচার শেষে নিয়মিত প্রচার শুরু করা হবে। প্রচারের সময় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে।

মাউশি থেকে জানা যায়, গত শুক্রবার থেকে ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের নিয়ে শ্রেণিপাঠের ক্লাস রেকর্ডিং করা শুরু হয়। তিনটি স্টুডিওতে এই ক্লাস রেকর্ডিং করা হচ্ছে। এর মধ্যে একটি স্টুডিও সরকারের শিক্ষাতথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরোর। এছাড়া ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এবং মোবাইলফোন অপারেটর রবির স্টুডিওতে এসব ক্লাস রেকর্ডিং করা হচ্ছে।

অন্যদিকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর থেকে প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের টেলিভশনের মাধ্যমে ক্লাস নেয়ার কাজ শুরু করেছে।