৪১ বছরে ইবি

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

৪১ বছরে ইবি

ইরফান রানা, ইবি ১২:৩৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০১৯

print
৪১ বছরে ইবি

প্রতিষ্ঠার ৪১ বছরে পদাপর্ণ করছে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়। আজ শুক্রবার ৪১তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালিত হবে। প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের হাত ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পেছনে রয়েছে এক বৃহৎ ইতিহাস।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৭৯ সালের ২২ নভেম্বর কুষ্টিয়া শহর থেকে ২৪ কি.মি. ও ঝিনাইদহ শহর থেকে ২২ কি. মি. দূরে শান্তিডাঙ্গা-দুলালপুর নামক স্থানে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। কিন্তু প্রতিষ্ঠার পরে থেকেই স্থানান্তর জটিলতায় পড়ে বিশ্ববিদ্যালয়টি।

পরে ১৯৮৩ সালের ১৮জুলাই এক অধ্যাদেশে শান্তিডাঙ্গা-দুলালপুর থেকে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় গাজীপুরের বোর্ড বাজারে স্থানান্তর করা হয়। জাতীয় সংসদে ১৯৮০ সালের ২৭ ডিসেম্বর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আইন ১৯৮০(৩৭) পাস হলে শিক্ষা ও প্রশাসনিক কার্যাবলী পরিচালনায় স্বায়ত্বশাসন প্রদান করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে বর্তমান পর্যন্ত ১২ জন উপাচার্য দায়িত্ব পালন করেছেন। ১২তম উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালটিকে আন্তর্জাতিক মানের হিসেবে দেখতে চাই। যা আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ সমাবর্তনের সময় ঘোষণা দিয়েছিলাম। সেই প্রক্রিয়া অব্যহত রয়েছে। আশা করছি, বিশ্ববিদ্যালয়টি শ্রেণি কক্ষ, শিক্ষা ও গবেষাণায় আন্তর্জাতিক মাতৃকতা পাবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান বলেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থী সকলে মিলে সুন্দর পরিবেশে শান্তি ও সম্প্রীতি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে চলতে পারি এই কামনা থাকবে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়টি তার মূল লক্ষ্যের দিকে অগ্রসরমান রয়েছে। তা বাস্তবায়নে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন। গ্রাজুয়েটরা নিজ গুণে দেশে ও বিদেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম উজ্জল করতে পারে এই প্রত্যাশাই কামনা করি।