‘ডি’ ইউনিটে ভর্তি প্রস্তুতি

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯ | ৩ কার্তিক ১৪২৬

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

‘ডি’ ইউনিটে ভর্তি প্রস্তুতি

রুমান হাফিজ ৩:০২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৯, ২০১৯

print
‘ডি’ ইউনিটে ভর্তি প্রস্তুতি

‘ডি’ ইউনিটের আইন বিভাগে চান্স পেতে হলে কী করবেন, কীভাবে প্রস্তুতি নেবেন ভর্তি পরীক্ষার জন্য। এ সম্পর্কে চবির অর্থনীতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আল-মামুনের সঙ্গে কথা বলে লিখেছেন- রুমান হাফিজ

বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ক্যাম্পাস চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা ২৭ অক্টোবর থেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে। চবি ভর্তি পরিক্ষায় ‘ডি’ ইউনিট খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং বিভাগ পরিবর্তনের ইউনিট।

আর ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক ১ম বর্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ডি’ ইউনিট অর্থাৎ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা ২৮ অক্টোবর। এই অনুষদে আছে আইন, অর্থনীতি, লোক প্রশাসন, রাজনীতি বিজ্ঞান, সমাজতত্ত্ব, নৃবিজ্ঞান, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা, ক্রিমিনোলজি অ্যান্ড পুলিশ সায়েন্স, ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ, সমাজবিজ্ঞান গবেষণা ইনস্টিটিউট ও সেন্টার ফর এক্সিলেন্স ইন টিচিং অ্যান্ড লার্নিং (সিওইটিএল) বিভাগ।

কার জন্য কত আসন
এই ইউনিটে সর্বমোট সিট সংখ্যা ১১৮১- যেখানে যথাক্রমে বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ৩৪১ আসন, ব্যবসায় বিভাগের জন্য ১৬২ আসন, মানবিক বিভাগের জন্য ৩১৫টি আসন বরাদ্দ রয়েছে। ‘ডি’ ইউনিটে ১ হাজার ১৮১টি আসনের বিপরীতে ৫২ হাজার ৯৭০ জন আবেদন করেছেন। সম্মিলিত এই ইউনিটে প্রতি আসনের বিপরীতে ৪৬ জন লড়বে।

তোমার এখন কাজ
একটু মাথা খাটিয়ে পড়লে খুব সহজেই তুমি তোমার আসনটি অর্জন করতে পার। চবি ভর্তি পরীক্ষায় পূর্বের বছরের প্রশ্ন থেকে মোটামুটি কমন আসে, তাই প্রথমেই প্রিভিয়াস ইয়ারের প্রশ্নগুলো ভালোভাবে পড়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে বলে মনে করি।

চবি ডি ইউনিটে বাংলা ১ম পত্র থেকে প্রশ্ন বেশি আসে। ডি ইউনিটে বাংলা-ইংরেজি-অ্যানালিটিক্যাল স্কিল-সাধারণ জ্ঞান/অর্থনীতি/গণিত থেকে প্রশ্ন হয়ে থাকে। বাংলা ১ম পত্রের ক্ষেত্রে মূল সিলেবাসের পাশাপাশি পুরো বইয়ের সব লেখকের নাম-ছদ্মনাম-বিখ্যাত বইয়ের নাম-জন্মস্থানগুলো পড়ে ফেলতে পার, এখান থেকে ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্ন আসে।

বাংলা ২য় পত্রের ক্ষেত্রে মুনির চৌধুরীর ৯ম-১০ম শ্রেণির বাংলা ২য় বইটি পড়লেই বাংলায় তোমার প্রিপারেশন হয়ে যাবে আশা করি। ইংরেজি ১ম পত্র থেকে সাধারণত চবি ‘ডি’ ইউনিটে তেমন প্রশ্ন আসে না।

এক্ষেত্রে ‘ক্লিফস টোফেল’ এবং ‘ব্যারনস টোফেল’ পড়লেই গ্রামার অংশের নম্বর খুব সহজেই তুলতে পারবে। এছাড়া ভোকাবুলারিসহ অন্যগুলো তো আছেই।

এবার বুদ্ধি খাটাও
অ্যানালজি অর্থাৎ বিশ্লেষণ দক্ষতা বেশি বেশি পড়তে হবে, কেননা এখান থেকে ইংরেজি অংশের পাশাপাশি বিশ্লেষণ দক্ষতা অংশেও প্রশ্ন আসে।

বিশ্লেষণ দক্ষতার জন্য অ্যানালজির পাশাপাশি সাধারণ ম্যাথ আর সামান্য বুদ্ধি খরচ করলেই আশা করি হয়ে যাবে।

রইল বাকি সাধারণ জ্ঞান
সাধারণ জ্ঞানের জন্য প্রিভিয়াস ইয়ারের প্রশ্ন বেশি আসে। এর পাশাপাশি সাম্প্রতিক সময়ের ঘটনাবলী পড়লেই তোমার ভর্তি প্রস্তুতি খুব ভালোভাবে হয়ে যাবে আশা করি।
সাধারণ জ্ঞান ছাড়াও তুমি চাইলে অর্থনীতি বা গণিত অংশের উত্তর দিতে পারো। সবার জন্য শুভকামনা রইল।