অবরোধে জাবি শিক্ষার্থীরা

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯ | ৩ কার্তিক ১৪২৬

অবরোধে জাবি শিক্ষার্থীরা

ভিসিপন্থীদের মানববন্ধন

জাবি প্রতিনিধি ১০:২৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০২, ২০১৯

print
অবরোধে জাবি শিক্ষার্থীরা

উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের পদত্যাগ দাবিতে দুদিনের অবরোধ কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

বুধবার (২ অক্টোবর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে অবরোধ শুরু করেন আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। তারা অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতি ও নৈতিক স্খলনের অভিযোগ তুলে স্বেচ্ছায় পদত্যাগে গত মঙ্গলবার পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছিলেন। ওই সময়ের মধ্যে পদত্যাগ না করায় বুধবার সকাল থেকে ভিসির পদত্যাগ দাবিতে প্রশাসনিক ভবন অবরোধ করেন আন্দোলনকারীরা।

সকাল সাড়ে ৭টায় প্রশাসনিক ভবনের ফটকগুলোতে তালা লাগিয়ে অবস্থান নেন আন্দোলনতরা। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রমে অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে। তবে বিভিন্ন বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের চূড়ান্ত পরীক্ষা অবরোধের আওতামুক্ত রয়েছে। বেলা ৪টা পর্যন্ত অবরোধ কর্মসূচি চলে। আজ বৃহস্পতিবারও ধর্মঘট চলবে।

এদিকে ভিসিপন্থী শিক্ষকরা একই দিন বেলা ১১টায় ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদ’-এর ব্যানারে শহীদ মিনারের পাদদেশে মানববন্ধন কর্মসূচি করেন। মানববন্ধনে শিক্ষকরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনকে ‘ষড়যন্ত্রমূলক’ ও ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ বলে আন্দোলনের নেপথ্যদের মিথ্যা অভিযোগকারী ‘চিহ্নিত দুর্নীতিবাজ’ বলে উল্লেখ করেন।

পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক আলমগীর কবীরের সঞ্চালনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. অজিত কুমার মজুমদার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থিতিশীল করার জন্য বার বার একটি গোষ্ঠী চক্রান্ত করছে। উপাচার্য এবং তার পরিবারের সদস্যদের ওপর দুর্নীতির অবিশ্বাস্য অভিযোগ তুলে উন্নয়ন কাজকে বন্ধ করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল মান্নান চৌধুরী বলেন, উপাচার্য আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসে তাদের তিনটি দাবির দুটি মেনে নিয়েছেন। আর তৃতীয় দাবি নিয়ে পরে আলোচনায় বসলে তারা বিচার বিভাগীয় তদন্তের দিকে না গিয়ে অভিযোগ ছাড়াই উপাচার্যের পদত্যাগ চাইলেন। এতে স্পষ্ট হয়ে গেছে, এখানে কোনো ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। আমরা অন্যায়ের কাছে মাথানত করব না। এসব অন্যায়কে রুখে দেওয়া হবে।