পরীক্ষার্থীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পরামর্শ

পরীক্ষার্থীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা

ওয়ালিয়ার রহমান ২:৪৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

print
পরীক্ষার্থীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা-২০১৯
প্রিয় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার্থীরা, তোমরা পরীক্ষা আজ ১৭ নভেম্বর শুরু হচ্ছে।

তোমাদের জীবনের প্রথম কোনো পাবলিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছ। এই পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের মাঝে রয়েছে অনেক কৌতূহল, স্বপ্ন, আশা-আকাঙ্খা এবং ভালো ফলাফল পাওয়ার প্রত্যাশা।

এই শিক্ষার্থীরা হাঁটি হাঁটি, পা পা করে প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয় এবং প্রায় ১১ মাসের অক্লান্ত পরিশ্রমের পর সমাপনী পরীক্ষায় (পিইসি) অংশগ্রহণ করবে।

সব পরীক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের জন্য রইল শুভ কামনা।

সুস্বাস্থ্য এবং আমার সন্তানতুল্য পরীক্ষার্থীরা চূড়ান্ত ফলাফলে কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছে যাবে- এই আমার আশা ও কামনা।

১. পরীক্ষার আগের রাতে বেশি রাত জেগে পড়াশোনা করবে না। কারণ বেশি রাত করে ঘুমালে, পরের দিন পরীক্ষার হলে/কক্ষে যেতে দেরি হতে পারে, মাথা ব্যথা করতে পারে অথবা পরীক্ষার হলে/কক্ষে ঘুম আসতে পারে।

২. পরীক্ষার দিন অবশ্যই পরীক্ষা শুরুর দেড় ঘণ্টা আগে (বাসা হতে পরীক্ষার কেন্দ্রের দূরত্ব হিসাব করে অভিভাবকগণ সিদ্ধান্ত নিবেন) বাসা থেকে বের হতে হবে।
কারণ সচরাচর সে দিন রাস্তায় অনেক যানজট থাকে যা তোমাকে টেনশন বা বিচলিত করে তুলবে, ফলে তুমি অস্থির হয়ে যাবে।

৩. পরীক্ষার খাতায় নাম, রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর ইত্যাদি অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে পূরণ করবে।

৪. উত্তরপত্রের বামে ও উপরে ১ ইঞ্চি (আনুমানিক) পরিমাণ মার্জিন করবে।

৫. বিভিন্ন রঙের কলম বা সাইনপেন ব্যবহার না করে রচনামূলক প্রশ্নের উত্তর লেখার সময় পয়েন্টগুলো নীল কালির কলম দিয়ে প্রশ্ন নম্বর ও আন্ডার লাইন করবে এবং বর্ণনা কালো কালি দিয়ে লিখবে, পয়েন্টগুলো প্যারা করে লিখবে।

৬. প্রশ্ন পাওয়ার পর সম্পূর্ণ প্রশ্নটি পড়ে বুঝে যে প্রশ্নের উত্তরগুলো ভালোভাবে পার, সেগুলোর উত্তর লিখবে প্রথমে।

প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর লেখার আগে অবশ্যই সেই প্রশ্নের দাগ নম্বরটি স্পষ্ট করে লিখবে।

৭. পরীক্ষায় অতিরিক্ত কাগজ (লুজ শিট)-এর প্রয়োজন হলে, নির্ভয়ে দায়িত্বরত শিক্ষকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে অতিরিক্ত কাগজ চেয়ে নিবে এবং স্বাক্ষর করিয়ে নিবে।

৮. কোথাও ভুল হয়ে গেলে সেটি একটানে কেটে দিয়ে পুনরায় লিখবে এবং কোনো প্রকার ঘষামাজা এবং ওভাররাইটিং করবে না।

৯. প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর লেখার মাঝে একটু জায়গা ছেড়ে দিবে। কারণ পরিচ্ছন্ন সুন্দর উত্তরপত্র সব শিক্ষকের/পরীক্ষক-নিরীক্ষকের পছন্দ।