গুরুত্বপূর্ণ সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৫ কার্তিক ১৪২৬

জেএসসি

গুরুত্বপূর্ণ সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

সুধীর বরণ মাঝি ১:০৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৭, ২০১৯

print
গুরুত্বপূর্ণ সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

উদ্দীপক : গোলাম কুদ্দুস সাহেব হাটহাজারী উপজেলার রহিমপুর গ্রামের একজন বাসিন্দা। তিনি ২০১৫ সালে একটি স্থানীয় সরকারের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি এলাকাবাসীর বিশুদ্ধ পানির সমস্যা দূর করার জন্য তার এলাকায় ৫টি নলকূপ স্থাপন, রাস্তাঘাট সংস্কার ও নির্মাণ এবং মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানের ব্যবস্থা করেন। ইতোমধ্যে তিনি তার এলাকায় একজন জনপ্রিয় ব্যক্তিত্বসম্পন্ন মানুষ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন।

ক) বাংলাদেশে জেলা পরিষদের সংখ্যা কত? খ) জনগণ সকল ক্ষমতার উৎস! ব্যাখ্যা কর। গ) গোলাম কুদ্দুস সাহেব কোন ধরনের স্থানীয় সরকারের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন? ঘ) গোলাম কুদ্দুস সাহেব চেয়ারম্যান হিসেবে উল্লিখিত দায়িত্ব ছাড়াও তাকে আরো অনেক দায়িত্ব পালন করতে হয়- বক্তব্যটির যথার্থতা নিরূপণ কর। 

ক) উত্তর : বাংলাদেশে জেলা পরিষদের সংখ্যা ৬৪টি। এর মধ্যে ৬১টি স্থানীয় সরকার-বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে আর বাকি ৩টি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে।

খ) উত্তর : গণতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থায় জনগণ সব ক্ষমতার উৎস হিসেবে বিবেচিত হয়। গণতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থায় সার্বভৌম ক্ষমতা জনগণের হাতে ন্যস্ত থাকে। জনগণ তাদের পছন্দমতো রাজনৈতিক দল ও ব্যক্তিকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে সরকার গঠন এবং দেশ পরিচালনায় অংশ নেয়

গ) উত্তর : উদ্দীপকের তথ্য অনুসারে বলা যায়, গোলাম কুদ্দুস সাহেব ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। স্থানীয় সরকারের প্রাথমিক স্তর হলো ইউনিয়ন পরিষদ। কয়েকটি গ্রাম নিয়ে একটি ইউনিয়ন পরিষদ গঠিত হয়। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনগণের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হন এবং এলাকার উন্নয়নে সুনির্দিষ্ট কর্মসূচি পরিচালনা করেন। উদ্দীপকে, ইউনিয়ন পরিষদের কার্যাবলি বর্ণিত হয়েছে। গোলাম কুদ্দুস সাহেব হাটহাজারী উপজেলার রহিমপুর গ্রামের একজন বাসিন্দা। তিনি স্থানীয় সরকারের সর্বনিম্ন স্তর থেকেই জনগণের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। কারণ কয়েকটি গ্রাম নিয়ে একটি ইউনিয়ন পরিষদ গঠিত হয়। এ থেকে বোঝা যায়, তিনি স্থানীয় সরকারের প্রাথমিক স্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ঘ) উত্তর : গোলাম কুদ্দুস সাহেব ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। জনপ্রতিনিধি হিসেবে ইউনিয়ন পরিষদের উন্নয়নে বহুমুখী কার্যক্রম পরিচালনা করতে হয়।

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে গোলাম কুদ্দুস সাহেবের কয়েকটি উল্লেখযোগ্য কাজ বর্ণিত হয়েছে। প্রকৃত পক্ষে ইউনিয়ন পরিষদের যাবতীয় সমস্যার সমাধানে তাকে কাজ করতে হয়। সরকারের সহায়তায় তিনি কাজগুলো সম্পন্ন করে থাকেন। গোলাম কুদ্দুস সাহেবকে তারই ইউনিয়নের সার্বিক উন্নয়নের পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করতে হয়।

প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্য ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা, ইউনিয়নের পরিবেশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা, এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা করা তার দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। উপরের আলোচনা থেকে আমরা বলতে পারি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে উদ্দীপকে উল্লিখিত কাজগুলো ছাড়াও গোলাম কুদ্দুস সাহেব আরও অনেক দায়িত্ব পালন করেন।

সুধীর বরণ মাঝি, শিক্ষক
হাইমচর সরকারি মহাবিদ্যালয় চাঁদপুর।