পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতি

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতি

বিজ্ঞান

ফাতেমা বেগম ৭:৪৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ০৭, ২০১৯

print
পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতি

প্রশ্ন : আমাদের শরীরের সঠিক তাপমাত্রা বজায় রাখতে কোনটি দরকার?
উত্তর : পানি

প্রশ্ন : পুকুর, খাল, বিল, নদী ও সমুদ্রের পানি জলীয় বাষ্পে পরিণত হয় কিসের প্রভাবে?
উত্তর : সূর্যতাপের প্রভাবে

প্রশ্ন : জলীয়বাষ্প বায়ুম-লের ওপরে উঠে কিসে পরিণত হয়?
উত্তর : ক্ষুদ্র পানিকণায়

প্রশ্ন : কী একত্র হয়ে আকাশে মেঘ হিসেবে ঘুরে বেড়ায়?
উত্তর : ক্ষুদ্র পানিকণা

প্রশ্ন : মেঘের পানি কণাগুলো খুব বেশি ঠা-া হয়ে গেলে কিসে পরিণত হয়?
উত্তর : বরফে

প্রশ্ন : বরফ পৃথিবীতে নেমে আসে কী হিসেবে?
উত্তর : শিলাবৃষ্টি হিসেবে

প্রশ্ন : বৃষ্টির পানি গড়িয়ে প্রথমে কোন পানির সঙ্গে মেশে?
উত্তর : নদীর পানির সঙ্গে

প্রশ্ন : নদীর পানি প্রভাবিত হয়ে কোথায় মেশে?
উত্তর : সমুদ্রের পানির সঙ্গে

প্রশ্ন : ভূ-পৃষ্ঠের পানি বিভিন্ন মাধ্যমে আবার ভূ-পৃষ্ঠে ফিরে আসে কোন প্রক্রিয়ায়?
উত্তর : পানি চক্র প্রক্রিয়ায়

প্রশ্ন : জলীয় বাষ্প মেঘরূপে উড়ে গিয়ে পর্বতের চূড়ায় পৌঁছে বরফে পরিণত হয় কোনটির কারণে?
উত্তর : বায়ু প্রবাহের কারণে

প্রশ্ন : পর্বতের বরফ সূর্যের তাপে গলে পানি হয়ে পাহাড়ের গা বেয়ে নেমে এসে উৎপত্তি ঘটায় কিসের?
উত্তর : ছোট পাহাড়ি নদীর

প্রশ্ন : বায়ুতে সবসময় কিছু পরিমাণ কী থাকে?
উত্তর : বাষ্প

প্রশ্ন : বৃষ্টি ও শিশির তৈরি হয় কী থেকে?
উত্তর : জলীয় বাষ্প থেকে

প্রশ্ন : ডোবা বা নর্দমার পানি পান করা কী?
উত্তর : ক্ষতিকর

প্রশ্ন : কিসের পানি সাধারণত নিরাপদ?
উত্তর : নলকূপের

প্রশ্ন : আমাদের দেশে কিছু কিছু নলকূপের পানিতে কী মিশে আছে?
উত্তর : আর্সেনিকনামক বিষাক্ত পদার্থ

প্রশ্ন : যেসব নলকূপের পানিতে আর্সেনিক আছে, সেসব নলকূপকে কী রং দ্বারা চিহ্নিত করা হয়?
উত্তর : লাল রং

প্রশ্ন : যেসব নলকূপের পানিতে আর্সেনিক নেই সেসব নলকূপকে কী রং দ্বারা চিহ্নিত করা হয়?
উত্তর : সবুজ রং

প্রশ্ন : লাল চিহ্নিত নলকূপের পানি পান করা-
উত্তর : নিরাপদ নয়

প্রশ্ন : প্রযুক্তি কীভাবে বিজ্ঞানের জ্ঞানকে ব্যবহার করে?
উত্তর : বিজ্ঞান হল পরীক্ষালব্ধ অর্জিত জ্ঞান। আর প্রযুক্তি হল সেই জ্ঞানের তথা বিজ্ঞানেরই ব্যবহারিক প্রয়োগ। বিজ্ঞান ছাড়া প্রযুক্তি অচল। বিজ্ঞানই প্রযুক্তিকে সচল রেখেছে। প্রযুক্তি নানা বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি আবিষ্কারে নানাভাবে বিজ্ঞানের জ্ঞানকে ব্যবহার করেছে।

যেমন : বিজ্ঞানীদের আবিষ্কৃত জলীয় বাষ্পের ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে মানুষ বাষ্পীয় ইঞ্জিন উদ্ভাবন করেছে।
এ বাষ্পীয় ইঞ্জিন কলকারখানা, রেলগাড়ি ও জাহাজ চালাতে ব্যবহার করা হতো।
* বিভিন্ন পণ্য ও যন্ত্রপাতি উদ্ভাবনে প্রযুক্তি বৈজ্ঞানিক জ্ঞান ব্যবহার করে থাকে।
* বিজ্ঞানীদের আবিষ্কৃত দূরবীণ বা দূরবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যে মহাকাশের বিভিন্ন বস্তু পর্যবেক্ষণ করা যাচ্ছে।
* খালি চোখে দেখা যায় না এমন জিনিস অনুসন্ধানে বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেছেন অনুবীক্ষণ যন্ত্র। সুতরাং, প্রযুক্তি নানাভাবে বিজ্ঞানের জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে জীবনকে করছে উন্নত ও আরামদায়ক।

সিনিয়র শিক্ষক
বর্ণমালা আদর্শ স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা।