জঙ্গিবাদ সমূলে উৎপাটন জরুরি

ঢাকা, রবিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১ | ১১ মাঘ ১৪২৭

জঙ্গিবাদ সমূলে উৎপাটন জরুরি

সম্পাদকীয় ১০:৩৮ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০২০

print
জঙ্গিবাদ সমূলে উৎপাটন জরুরি

ধর্মের নামে সন্ত্রাস চালাচ্ছে একশ্রেণির বিপথগামী। শুধু বাংলাদেশ নয়, এ সমস্যা বিশ্বজুড়ে। প্রায়ই জঙ্গিবাদী তৎপরতা লক্ষ করা যায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। বাংলাদেশে মাঝখানে জঙ্গি তৎপরতা বাড়লে, সরকারের কঠোর হস্তক্ষেপের কারণে তা অনেকাংশেই কমে আসে। বর্তমানে ফের মাথাচাড়া দিয়েছে বিপথগামীরা। গতকাল খোলা কাগজে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, সারা দেশে ফের বেড়েছে জঙ্গি তৎপরতা। সিরাজগঞ্জে গত শুক্রবার র‌্যাবের পাঁচ ঘণ্টার শ্বাসরুদ্ধকর অভিযানে আত্মসমর্পণে বাধ্য হয়েছে চার জঙ্গি। সেখানে জঙ্গিদের আস্তানা থেকে উদ্ধার হয়েছে বিপুল পরিমাণ জিহাদি প্রশিক্ষণমূলক বইপুস্তক, দুটি বিদেশি পিস্তল ও বোমা তৈরির সরঞ্জাম। এর আগে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) আঞ্চলিক আমিরসহ রাজশাহীতে আটক হন আরও চার জঙ্গি। র‌্যাবের কাছে দেওয়া তথ্যে খোলাসা হয় সিরাজগঞ্জের তৎপরতা। পরে ভোরে শুরু হয় এ অভিযান।

এদিকে একই দিন বিকালে রাজধানীর কামারপাড়া এলাকায় একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে ৩১টি বোমা উদ্ধার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের শেরখালী উকিলপাড়ায় ভোর সাড়ে ৫টা থেকে অভিযান শুরু করে র‌্যাব। প্রায় পাঁচ ঘণ্টার এ অভিযান চলে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত। অভিযানে চার সন্দেহভাজন জঙ্গি আত্মসমর্পণ করে। এছাড়া ওই বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ জিহাদি প্রশিক্ষণমূলক বই, দুটি বিদেশি পিস্তল ও বোমা তৈরির বেশ কিছু সরঞ্জাম উদ্ধারের কথা জানা গেছে। অভিযান শেষে ঘটনাস্থলের পাশে বেলা ১১টায় তাৎক্ষণিক প্রেস ব্রিফিং করে র‌্যাব। প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাব সদর দফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল মোস্তফা সরোয়ার এবং আইন ও গণমাধ্যম বিষয়ক কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান, গত ৫ নভেম্বর শাহজাদপুরের শেরখালী উকিলপাড়ায় প্রকৌশলী শামসুল হকের বাড়িতে ছাত্র পরিচয়ে ভাড়া করে ওই চার যুবক। পরে সেখানে জঙ্গি তৎপরতা শুরু করে। গত বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহীর শাহ মখদুম থানা এলাকায় নব্য জেএমবির আমির মাহবুবসহ চার জনকে আটক করে র‌্যাব-৫। আটক আমিরের তথ্যের ভিত্তিতে শাহজাদপুরে অভিযান চালান র‌্যাব সদস্যরা। শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টায় বাড়িটি ঘিরে রাখার সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের লক্ষ করে জঙ্গিরা কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। বাড়িতে বড় ধরনের অস্ত্রের মজুদ আছে এমন সন্দেহে র‌্যাব জোরালোভাবে অভিযানের প্রস্তুতি নেয়। পরে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিলে সকাল সাড়ে ১০টার পর চার জঙ্গি র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করে।

রাজধানীর কামারপাড়ার ঘটনায় ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার হাফিজ আক্তার সাংবাদিকদের বলেন, উত্তরা পশ্চিম থানা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাসুম এবং যুবদলের অন্য আরেক নেতা সোহেলকে উপ-নির্বাচনে ককটেল বিস্ফোরণের দায়ে গ্রেফতার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্যমতে এখানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। বোমা ও বোমা তৈরির অনেক সরঞ্জাম পাওয়া যায়। জঙ্গিবাদের বিষফোঁড়া থেকে মুক্তি পেতে সংশ্লিষ্টদের তৎপরতা প্রশংসনীয়। সাধারণ মানুষকে এ অপতৎপরতার ক্ষতিকর প্রভাব থেকে মুক্ত রাখা জরুরি। জঙ্গিবাদের মূলোৎপাটনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কর্মতৎপরতার ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ণ রাখবে বলেই প্রত্যাশা।