স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মনোযোগ দিন

ঢাকা, রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ | ১৪ চৈত্র ১৪২৬

স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মনোযোগ দিন

সম্পাদকীয় ৮:৫৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৩, ২০২০

print
স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মনোযোগ দিন

পেশাগত দায়িত্ব পালনে মাঠপর্যায়ে কাজ করতে হচ্ছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের। বিশ্বজুড়ে যে করোনা ঝুঁকি, তার ঢেউয়ে জেরবার হচ্ছে বাংলাদেশ। আশঙ্কায় দিন কাটাচ্ছেন লাখো মানুষ। সাধারণ মানুষ ও করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সুরক্ষায় চিকিৎসকরা যেমন নিবেদিত প্রাণ তেমনি আইনশৃঙ্খলায় নিয়োজিত কর্মীরাও তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টায় মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন। একই চিত্র বাংলাদেশেও। মানুষের নিরাপত্তার পাশাপাশি কোয়ারেন্টাইন ও লকডাউনের ঘোষণা কার্যকরে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ ও র‌্যাব। প্রস্তুতি আছে বিজিবিরও। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছে, নিজেদের সুরক্ষার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা মেনে দায়িত্ব পালন করছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

এ বিষয়ে গতকাল প্রতিবেদন প্রকাশিত হয় খোলা কাগজে। বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের মিডিয়া উইংয়ের এআইজি সোহেল রানা বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ায় আমরাও শঙ্কিত, তারপরও জনস্বার্থে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ। তাদের অফিস ডিউটি থেকে শুরু করে সব কাজেই সচেতনতার পাশাপাশি স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশনার আলোকে নিজেদের সুরক্ষা করে যাচ্ছেন। প্রতিনিয়তই মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার পাশাপাশি করোনা থেকে রক্ষার জন্য যা যা প্রয়োজন সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে পুলিশ। তাছাড়া অফিসের প্রবেশমুখগুলোকে এককেন্দ্রিক করে নিয়মানুসারে চেক করে ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে। এমনকি যেসব গাড়ি ব্যবহার করা হচ্ছে সেগুলো জীবাণুনাশক স্প্রে দিয়ে জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

যারা বিভিন্ন বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনের দায়িত্বে রয়েছেন সেখানেও নিয়ম মেনেই দায়িত্ব পালন করছেন তারা। তাছাড়া প্রয়োজন ছাড়া কোথাও মুভমেন্ট যেন না করেন সেদিকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পুলিশের প্রতিটি ইউনিটে পুলিশের জন্য কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থাও করা হয়েছে বলে জানান তিনি। এমনকি পুলিশের জন্য রক্ষিত প্রতিটি হাসপাতালেও পর্যাপ্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব নিজেদের সুরক্ষায় প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম বলেন, র‌্যাবের প্রতিটি সদস্যকে স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়টি প্রাধান্য দিয়ে কাজ করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য সুরক্ষায় পর্যাপ্ত হ্যান্ড গ্লাভস, মাস্ক, স্যানিটাইজারসহ কিছু মেশিনারিজ সংগ্রহ করা হয়েছে। তাছাড়া আসামি ধরার ক্ষেত্রেও সাবধানতার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধির নিয়ম মেনে চলেন সেই নির্দেশনাসহ প্রতিটি ইউনিটে তথ্য প্রদান করা হয়েছে।

বিজিবির ডিরেক্টর অপারেশনস লে. কর্নেল আশিকুর রহমান বলেন, বিজিবি যেহেতু প্রত্যন্ত এলাকায় বর্ডারে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে সেহেতু সব সদস্যের করোনা ভাইরাস থেকে নিজেদের রক্ষার জন্য স্বাস্থ্য সুরক্ষার প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। নিজেরা সচেতন থেকে যেন অন্যদেরও সচেতন করতে পারেন সেটি নিয়ে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। এ দুর্যোগে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় নিজেরাই মনোযোগী হবেন, স্ব স্ব বাহিনীর পক্ষে বিশেষ তদারকি করা হবে বলেই আমাদের প্রত্যাশা।