চা উৎপাদনে প্রশংসনীয় রেকর্ড

ঢাকা, বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬

চা উৎপাদনে প্রশংসনীয় রেকর্ড

সম্পাদকীয়-১ ৮:৪২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২০

print
চা উৎপাদনে প্রশংসনীয় রেকর্ড

বিশ্বজুড়েই জনপ্রিয় পানীয় চা। বাংলাদেশ হচ্ছে চা উৎপাদনের গৌরবদীপ্ত রাষ্ট্র। দীর্ঘদিন থেকে এ দেশ থেকে চা রপ্তানি হয়ে আসছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন, কর্মসংস্থান নিশ্চিতের পাশাপাশি এর মাধ্যমে বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিংও হচ্ছে। চা উৎপাদনে রেকর্ড করেছে বাংলাদেশ।

আজ খোলা কাগজে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৬৫ বছরের ইতিহাসে ২০১৯ সালে অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে সর্বোচ্চ উৎপাদনের মাধ্যমে নতুন রেকর্ড গড়তে চলেছে বাংলাদেশের চা শিল্প।

বাংলাদেশ চা বোর্ডের উপ-পরিচালক (পরিকল্পনা) মো. মুনির আহমদ গণমাধ্যমকে বলেন, ২০১৯ সালে ইতোমধ্যে চায়ের উৎপাদনে রেকর্ড করেছি আমরা। তবে এখনো এর চূড়ান্ত হিসাব করা হয়নি। তাই সুনির্দিষ্ট করে এখনই পরিসংখ্যান বলা যাবে না। ডিসেম্বরের পরিসংখ্যানটা বলতে একটু সময় লাগবে। কেননা, সমাপ্তির একটা বিষয় রয়েছে।

২০২৫ সালের মধ্যে দেশে চায়ের উৎপাদন ১৪ কোটি কেজিতে উন্নীত করতে কাজ চলছে বলে জানান তিনি। বাংলাদেশ চা বোর্ডের প্রকল্প উন্নয়ন ইউনিটের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ড. এ কে এম রফিকুল হক বলেন, ২০১৮ সালের চেয়ে ২০১৯ সালে দেশে প্রায় দেড় কোটি কেজি চা বেশি উৎপন্ন হয়েছে। অভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটিয়ে চা বিদেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনই এখন লক্ষ্য।

২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত বছরে দেশে চা উৎপাদন হয়েছে ৮২ দশমিক ১৩ মিলিয়ন কেজি। ওই বছর চা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭২ দশমিক ৩ মিলিয়ন কেজি। এর আগে ২০১৬ সালে ১৬২ বছরের চা শিল্পের ইতিহাসে দেশের সর্বোচ্চ চা উৎপাদন হয়েছিল ৮৫ দশমিক ০৫ মিলিয়ন কেজি।

বাংলাদেশ চা সংসদ সিলেট অঞ্চল শাখার চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ শিবলী বলেন, আগে কয়েক বছর চা উৎপাদন ভালো হয়নি। তবে সংশ্লিষ্ট চা বাগান কর্তৃপক্ষ ও চা বোর্ডের নানামুখী পদক্ষেপের দু-তিন বছর ধরে উৎপাদন বেড়েছে।

চা উৎপাদনের এ রেকর্ড ধরে রাখতে হবে। অর্থকরী এ ফসল উৎপাদনের প্রতিবন্ধকতা ও শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নের দিকেও সংশ্লিষ্টরা নজর দেবেন বলেই আমরা প্রত্যাশা করি। বিভিন্ন সময়ে চা শ্রমিকদের মানবেতর জীবনের বিষয়ে আলোকপাত করা হয়েছে গণমাধ্যমে। উৎপাদকরা নিজেরা লাভবান হওয়ার পাশাপাশি শ্রমিক স্বার্থও নিশ্চিত করবেন- বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া জরুরি।