বিজয় দিবসে স্বাধীনতার লক্ষ্য অর্জন বেগবান হোক

ঢাকা, শনিবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২০ | ৫ মাঘ ১৪২৬

বিজয় দিবসে স্বাধীনতার লক্ষ্য অর্জন বেগবান হোক

সম্পাদকীয়-১ ৮:১০ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৯

print
বিজয় দিবসে স্বাধীনতার লক্ষ্য অর্জন বেগবান হোক

আজ মহান বিজয় দিবস। বাংলাদেশের পরিপূর্ণ আত্মবিকাশের দিন। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের আনুষ্ঠানিক পরিসমাপ্তি ঘটে। ৩০ লাখ শহীদের রক্ত আর ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে বাংলাদেশের স্বাধীনতা। শিল্পী গেয়েছেন ‘দাম দিয়ে কিনেছি বাংলা কারো দানে পাওয়া নয়/ দাম দিছি প্রাণ লক্ষ কোটি জানা আছে জগৎময়।’

আসলেই বাংলাদেশের মতো এত জীবনের বিনিময়ে স্বাধীনতা পাওয়ার ইতিহাস বিরল। বিজয় দিবসে আমরা সশ্রদ্ধচিত্তে স্মরণ করি আমাদের স্বাধীনতার মহানায়ক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, গভীর শ্রদ্ধা জানাই মুক্তিযুদ্ধসহ বাংলাদেশের স্বাধিকার আন্দোলনের বিভিন্ন বাঁকে আত্মাহুতি দানকারী শহীদদের।

বিজয় দিবসের ৪৯তম বছরে পা দিয়েছি আমরা, ধীরে ধীরে বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আগামী বছর দেশে উদযাপিত হবে ‘মুজিববর্ষ’। এর পরপরই আমাদের বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান নিয়েও সরকারের রয়েছে অনেক পরিকল্পনা।

আমরা মনে করি, স্বাধীনতাকে অর্থবহ করে তুলতে, স্বাধীনতার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য অর্জনের পথেই আছে বাংলাদেশ। ক্ষুধা, দারিদ্র্য, অশিক্ষামুক্ত যে বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন আমাদের স্বাধীনতার নায়করা তা অনেকটাই পূরণ হয়েছে। তবে তাতে আমাদের স্বাধীনতার চ্যালেঞ্জ মোটেও কমেনি, কেননা সামাজিক ও অর্থনৈতিক বৈষম্য দূর করাটাও আমাদের স্বাধীনতার অন্যতম লক্ষ্য। সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প যেন সমাজে ছড়িয়ে না পড়ে, মানুষে মানুষে যেন ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় থাকে তাও আমাদের স্বাধীনতার স্বপ্ন।

এ লক্ষ্যগুলো অর্জনের পথে বেশিরভাগ সময় বাংলাদেশ সঠিক পথে থাকলেও কখনো কখনো নানা অপশক্তির হানায় সে পথচলা বিঘ্নিত হয়। বিজয় দিবসের এই লগ্নে আমাদের প্রত্যাশা বাংলাদেশ তার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য পূরণ করতে পারবে। আমাদের স্বাধীনতা অর্জনের মাহাত্ম্য দিন দিন অর্থবহ ও স্পষ্ট হবে। বিজয় দিবসের এই ক্ষণে খোলা কাগজ-এর পক্ষ থেকে এর পাঠক, লেখক, বিজ্ঞাপনদাতা, হকার ও শুভানুধ্যায়ীদের জানাই শুভেচ্ছা। মহান বিজয় দিবস সবাইকে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ করবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।