পোশাক রপ্তানিতে বিপর্যয়

ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পোশাক রপ্তানিতে বিপর্যয়

সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা জরুরি

সম্পাদকীয় ৯:৪১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৬, ২০১৯

print
পোশাক রপ্তানিতে বিপর্যয়

বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করার ক্ষেত্রে পোশাক শিল্প যুগ যুগ ধরে আমাদের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে। বিশ্ববাজারে পোশাকশিল্পের বদৌলতে আমরা মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছি। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও দক্ষ শ্রমবাজার তৈরিতে পোশাক খাতের একক অবদান রয়েছে। তবে পোশাক শিল্পের এমন সুদিনে মন্দার আশঙ্কা বেশ কয়েক বছর ধরেই দেখা দিয়েছিল। অবশেষে সে দুর্দিনের ঘনঘটা পোশাক খাতকে আক্রমণ করে বসেছে।

খোলা কাগজে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায়, তৈরি পোশাক খাতে রপ্তানি হ্রাস বিগত বছরের সব রেকর্ড ভঙ্গ করেছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে যেখানে অব্যাহতভাবে রপ্তানি বেড়ে যাচ্ছিল সেখানে চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের জুলাই-অক্টোবর চার মাসে রপ্তানি কমে গেছে প্রায় সাত শতাংশ। এ অবস্থা দেশের তৈরি পোশাক শিল্পে নজিরবিহীন বিপর্যয় বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। অবস্থা উত্তরণে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জরুরি বৈঠক ডেকেছে। বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) তথ্য অনুযায়ী চলতি বছরের প্রথম চার মাসে রপ্তানি আয় হয়েছে ১০ দশমিক ৫৭৭ বিলিয়ন ডলার। যা আগের বছরের চেয়ে ৬ দশমিক ৬৭ শতাংশ কম। গত বছর একই সময়ে রপ্তানি আয় হয়েছিল ১১ দশমিক ৩৩৩ বিলিয়ন ডলার।

আমাদের দেশের মোট রপ্তানির ৮০ থেকে ৮৫ ভাগ আসে তৈরি পোশাক থেকে। প্রায় ৪০ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে এই শিল্পে। এর মধ্যে প্রায় ৮০ ভাগ রয়েছে নারী। যারা এসেছে গ্রাম থেকে। কর্মসংস্থানের এই ভৌগোলিক বিভাজন দারিদ্র্য দূরীকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। নারী ক্ষমতায়নেও ভূমিকা রাখছে তৈরি পোশাকশিল্প। পাশাপাশি ব্যাংক, বীমা, পরিবহন, শিক্ষা খাত, নির্মাণসহ বিভিন্ন খাতকে প্রভাবিত করেছে এই শিল্প। সরকারি বিনিয়োগ ছাড়াও এলাকাভিত্তিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে এ খাত।

তৈরি পোশাক রপ্তানির ক্ষেত্রে নেতিবাচক ধারা সূচিত হওয়ার কারণে অর্থনীতিবিদ ও রপ্তানিকারকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। তারা মনে করছেন এ নেতিবাচক ধারা অব্যাহত থাকলে দেশে উন্নয়নের যে ধারা অব্যাহত আছে, তা হোঁচট খাবে। এমন অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতিতে চিন্তিত পোশাক খাতের উদ্যোক্তারা। এই দুঃসময় থেকে উত্তরণে বড় ধরনের সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে আসা জরুরি বলে মনে করছে শীর্ষ ব্যবসায়ী সংগঠন এফবিসিসিআই। আমরা আশা করব সরকার জরুরি ভিত্তিতে পোশাক শিল্পের দুর্দশা উত্তরণে সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনার ভিত্তিতে যথাযথ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে।