পুঁজিবাজারে বড় দরপতন

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬

পুঁজিবাজারে বড় দরপতন

বিনিয়োগের সুরক্ষা প্রয়োজন

সম্পাদকীয় ৮:৪৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯

print
পুঁজিবাজারে বড় দরপতন

পুঁজিবাজার নিয়ে টালবাহানার শেষ হচ্ছে না। কিছুদিন আগে কয়েক বছরের সবচেয়ে বড় দরপতনে বিনিয়োগকারীদের হাজার হাজার কোটি টাকা লোকসান গুনতে হয়েছে। দেশে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগের নির্ভরযোগ্য জায়গা পুঁজিবাজার হলেও সেখানে ভরসা রাখতে পারছেন না সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। আমাদের সবচেয়ে বড় দুই পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই)। এই দুই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীর সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। অথচ টানা দরপতনের কারণে লোকসানের কারণে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের সর্বস্ব গ্রাস হচ্ছে।

খোলা কাগজের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এ সপ্তাহেও দেশের পুঁজিবাজারে বড় ধরনের দরপতন হয়েছে। প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মূল্যসূচক ৩৩ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থান করছে। বিক্রির চাপে লেনদেন বাড়লেও কমে গেছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দর। আর এতেই লোকসান গুনতে হচ্ছে বিনিয়োগকারীদের। গত ৩৩ মাসের মধ্যে এবার সর্বনিম্ন দরপতন হলেও এর আগেও হাজার হাজার বিনিয়োগকারীর ক্ষতি হয়েছে যা এখনো চলমান। বিক্ষোভ-ধর্মঘটের নজিরও রয়েছে। সাধারণ বিনিয়োগকারীরা অল্প অর্থ খাটিয়ে কিছু লাভ করতে চাইলেও দরপতনের কারণে তাদের ক্ষতিই হচ্ছে নিয়মিত।

গতকাল বুধবার ডিএসইর প্রধান সূচক নেমে এসেছে ৪ হাজার ৯৩৩ দশমিক ১৭ পয়েন্টে। এই সূচক ৩৩ মাসের মধ্যে সবচেয়ে কম। এর আগে ২০১৬ সালের ২১ ডিসেম্বর এই দিন সূচক ছিল ৪ হাজার ৯২৪ পয়েন্ট। পুঁজিবাজারে লেনদেন যাই হোক না কেন তাতে বিনিয়োগকারী এবং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান লাভবান না হলে দুপক্ষই লোকসানের মুখ দেখে। বিনিয়োগ কমে এলে উৎপাদন সীমিত করে ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানগুলো। অন্যদিকে বিনিয়োগ করে শেয়ার থেকে লাভ না হলে মাথায় হাত পড়ে বিনিয়োগকারীর। আর যদি সে সাধারণ হয় তবে তার সর্বস্ব খোয়ানোরও আশঙ্কা থাকে।

বারবার বলা সত্ত্বেও পুঁজিবাজারে দরপতন রোধ করা যাচ্ছে না। প্রভাবশালী সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্যে সাধারণের শত শত কোটি কোটি টাকা পুঁজিবাজার থেকে গায়েব হয়ে যাচ্ছে। অথচ বিষয়টি যেন দেখার কেউ নেই। সরকার সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান এবং অর্থ-বাণিজ্য মন্ত্রণালয় যদি পদক্ষেপ নেয় তাহলে এমনটি হওয়ার কথা নয়।

আমরা চাই, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের অর্থ নিরাপদে থাকুক। লাভ না হোক দরপতনের কারণে তারা যেন লোকসানের সম্মুখীন না হয় সে বিষয়টিই মুখ্য। তাই, দরপতন হলেও সাধারণ বিনিয়োগকারী মূলধন যেন নিরাপদে থাকে ডিএসইকেই সে ব্যবস্থা করতে হবে। বিনিয়োগকারীদের শতভাগ সুরক্ষা দেওয়াও তাদের দায়িত্ব।