ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯ | ৪ ভাদ্র ১৪২৬

ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল

আশু সমাধান কাম্য

সম্পাদকীয় ৮:৫৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০২, ২০১৯

print
ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল

রাষ্ট্রের নাগরিক হিসেবে আমরা সরকারের বিভিন্ন সংস্থার সেবা গ্রহণ করে থাকি। এজন্য আমরা মাস শেষে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত বিল প্রদান করলেও প্রায়ই সরকারি বিভিন্ন সংস্থার সেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে ভূতুরে বিলের অভিযোগ পাওয়া যায়। যা খুবই ভোগান্তির এবং সরকারি সেবার গ্রাহক হিসেবে মোটেও কাম্য নয়। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অবহেলার বিষয়টি খতিয়ে দেখা প্রয়োজন।

খোলা কাগজে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায়, রাজধানী ও বিভিন্ন জেলার গ্রাহকদের একটি অংশ বিদ্যুৎ বিল নিয়ে অস্বস্তিতে রয়েছেন। গত কয়েক মাস ধরে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিদ্যুতের ভুতুড়ে বিল আসায় (আগের কয়েক মাসের বিলের ধারাবাহিকতার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি) মানুষ ক্ষুব্ধ। ভূতুরে বিলের প্রতিবাদে কেউ কেউ বিক্ষোভ করছেন, কেউ কেউ আবার উকিল নোটিস পাঠিয়েছেন। কিন্তু সমস্যার সমাধান হচ্ছে না। অস্বাভাবিক বিদ্যুৎ বিল নিয়ে মানুষের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও অস্থিরতা ক্রমেই বাড়ছে।

সারা দেশে বিদ্যুৎ বিতরণ করে এমন প্রতিষ্ঠান রয়েছে ৬টি। এগুলো হচ্ছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো), বাংলাদেশে পল্লী বিদ্যুৎ বোর্ড (বাপবিবো), ডেসকো, ডিপিডিসি, ওজোপাডিকো ও নেসকো। এরমধ্যে ঢাকায় যে কয়টি প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎ বিতরণ করে তার মধ্যে ডিপিডিসিও একটি। গ্রাহকরা শুধু ডিপিডিসির দ্বারা হয়রানির শিকার হচ্ছে এমন নয়, অন্যান্য বিদ্যুৎ বিতরণ প্রতিষ্ঠানগুলো দ্বারাও মানুষ হয়রানির শিকার হচ্ছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহজাদাপুর ইউনিয়নের দুই শতাধিক লোক গত ২৮ জুলাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বিদ্যুৎ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেছেন। তাদের দাবি ছিল বিদ্যুতের ভৌতিক বিল প্রত্যাহারের। পরে উপজেলা বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে বিক্ষুব্ধ লোকজন শান্ত হন। ঝালকাঠিতে বিদ্যুতের ভৌতিক বিল থেকে মুক্তি পেতে গত ৩০ জুলাই ঝালকাঠি ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির নির্বাহী প্রকৌশলীকে লিগ্যাল নোটিস করেছেন এক প্রবীণ শিক্ষক।

আমরা মনে করি, জনসাধারণের এমন ভোগান্তি মোটেও কাম্য নয়। আশা করব সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অবিলম্বে গ্রাহকদের কাছ থেকে পাওয়া অভিযোগ তদন্ত করে এ সমস্যার কারণ উদ্ঘাটন করবে এবং ভবিষ্যতে যেন আর এ ধরনের ঘটনা না ঘটে সেজন্য দৃষ্টান্ত হিসেবে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।