বাজেটে দাম বাড়ার সংস্কৃতি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯ | ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

বাজেটে দাম বাড়ার সংস্কৃতি

কমানোর উদ্যোগ নিন

সম্পাদকীয়-১ ১০:০৯ অপরাহ্ণ, জুন ১৬, ২০১৯

print
বাজেটে দাম বাড়ার সংস্কৃতি

প্রতি অর্থবছরেই বাজেট প্রস্তাবের সঙ্গে সঙ্গে অদৃশ্য কারণে পণ্যের দাম বৃদ্ধি পায়। বাজেট পাস হলেও তা একই রকম থাকে। কিন্তু একবার দাম বেড়ে গেলে সে পণ্যের দাম কমার উদাহরণ আর সৃষ্টি হয় না। স্বাধীনতার পর থেকে সরকার যতগুলো বাজেট পাস করেছে সেখানে যত পণ্যের দাম বেড়েছে তা আর কোনো দিন কমেনি। এবারের বাজেটেও তাই হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ইতোমধ্যেই যেসব পণ্যের দাম বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে প্রস্তাব করা হয়েছে তার দাম বেড়েছে। আর এর প্রভাব পড়ছে ভোক্তাশ্রেণির ওপর।

খোলা কাগজ-এর প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সম্প্রতি সংসদে বাজেট প্রস্তাবনার সঙ্গে সঙ্গে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য; যেমন চিনি, গুঁড়োদুধ, ভোজ্যতেল, আদা-হলুদ-রসুনসহ অনেক পণ্যের দাম বেড়েছে। অতীতেও তাই হয়েছিল। কিন্তু কোনো বাজেটেই নিত্যপণ্যের দাম কমানোর উদ্যোগ কিংবা নজির তেমন দেখা যায় না। ‘পুরনো কাসুন্দি ঘাটলে যেমন ঝাঁজ বাড়ে না’, তেমনি অনেক কৌশল অবলম্বন করেই বাজেট প্রস্তাব কিংবা পাস করা হলেও তা আগের মতোই হয়।

এবারের বাজেটেও যেসব পণ্যের দাম কমানোর প্রস্তাব করা হয়েছে তা সর্বসাধারণের ব্যবহারের উপযোগী নয়। কৃষি উপকরণ, বিভিন্ন গ্যাস (অক্সিজেন, কার্বন ডাই অক্সাইড), ইলেকট্রিক পণ্য ইত্যাদিতে দাম কমানো হলেও তা সর্বসাধারণের ব্যবহারের জিনিস নয়।

এদিকে মানুষের আয়ের সীমা এবং জীবনযাত্রার মান বাড়লেও বাজারে পণ্য কিনতে গিয়ে দাম শুনে অনেকেই অবাক হয়। দেশের বিভিন্ন জায়গায় নিত্যপণ্যের দামেরও হেরফের দেখা যায়। একচেটিয়া বাজার ব্যবস্থাপনায় ভোক্তাদের সুবিধা দিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন থাকলেও বাস্তবে তার কার্যক্রম সীমিত।

এদিকে ২০১৯-২০ বাজেটে যেসব পণ্যের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে তার দাম পাস হওয়ার আগেই বেড়ে গেলেও কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ দেখা যাচ্ছে না। বরং সচেতন মহলের ধারণা, ব্যবসায়ীশ্রেণিকে সুবিধা দিতেই কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয় না। আর এতে করে ভোগান্তি এবং ক্ষতি দুই-ই পোহাতে হচ্ছে সাধারণকে।

বর্তমানে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে তুমুল গতিতে এগিয়ে চলেছে। সাধারণেরও সবকিছুতেই উন্নতি হয়েছে। উৎপাদন ব্যবস্থাও ভালো। কিন্তু অর্থনীতির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাংক খাত এখনো নাজুক পরিস্থিতিতেই আছে। মুষ্টিমেয় কিছু লোকের হাতে অর্থ চলে যাওয়ায় বিপাকে সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ।

প্রতিবছর নতুন বাজেট পাস হলে পণ্যের দাম বাড়বেই। কিন্তু সাধারণের পকেটে যদি পণ্য কেনার সামর্থ্য না থাকে তাহলে পণ্যের দাম বাড়ানোর মানে সাধারণের হয়রানি। অথচ রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্বে থাকা সরকারের এমনটি করা উচিত নয়। পণ্যের উৎপাদনের দিকে লক্ষ্য রেখে বাজেটে তার দাম বৃদ্ধি নয় বরং কমানোর দিকে নজর দিতে হবে।