ক্ষেতের ধান পোড়াল কৃষক

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯ | ১ শ্রাবণ ১৪২৬

ক্ষেতের ধান পোড়াল কৃষক

ব্যবস্থা নিতে হবে সরকারকে

সম্পাদকীয় ৮:৪০ অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০১৯

print
ক্ষেতের ধান পোড়াল কৃষক

দেশের কৃষক ভাইদের দেখভালের কথা আমরা বারবার বলে আসছি। তাদের সম্প্রসারণ বাদ দিয়ে প্রকৃত উন্নয়ন একটি স্বপ্ন হয়ে থাকবে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ, পণ্যের ন্যায্য দাম না পাওয়া, চাষাবাদ করে ক্রমিক হারে ক্ষতির মুখ দেখা, লাভবান না হওয়া-ইত্যাদি কারণে কৃষিপণ্য উৎপাদন থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে কৃষকশ্রেণি। অনেক সময় বিভিন্নভাবে কৃষকরা ন্যায্য দাবিতে সোচ্চার হলেও এবার ক্ষেতের ফসল পুড়িয়ে প্রতিবাদ করল এক কৃষক। দেশের কৃষি খাতে ভাবমূর্তি যে অধঃপতনের দিকে এটিই তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

খোলা কাগজের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, দেশের অনেক জায়গায় পাকা ধান কাটতে এবং ঘরে তুলতে দুই মণ ধানের দাম দিয়েও দিনমজুর পাচ্ছে না কৃষকরা। এতে জমিতেই নষ্ট হচ্ছে ধান। এ ছাড়া, ধানের দাম কম হওয়ায় উৎপাদন খরচ তুলতেই হিমশিম খাচ্ছেন অনেকে। এই পরিপ্রেক্ষিতে লোকসানের আশঙ্কায় টাঙ্গাইলের কালিহাতীর এক কৃষক তার ক্ষেতের পাকা ধান পুড়িয়ে দিয়েছে। সরকার মণপ্রতি ধানের দাম মাত্র ৫০০ টাকা নির্ধারণ করলেও একজন দিনমজুর পেতে কৃষকদের গুনতে হচ্ছে প্রায় এক হাজার টাকা। যে কারণে শুধু টাঙ্গাইলের ওই কৃষক নয় বরং দেশব্যাপী অনেকেই আজ ফসল ফলিয়ে লোকসানের আশঙ্কায় দিশাহারা।

আমাদের দেশে এ জাতীয় ঘটনা নতুন কিছু নয়। বছর বছর পণ্য উৎপাদন করে হাহাকার করে কৃষক। ধান, গম, সবজি, দুধ থেকে শুরু করে অনেক পণ্যেই ন্যায্য দাম থেকে বঞ্চিত হতে হয় তাদের। দালাল-ফড়িয়াদের খপ্পর তো থাকছেই। এ ছাড়াও সরকার থেকে কৃষকদের উন্নয়নে প্রণোদনা এবং ভর্তুকি দেওয়া হলেও তা যৎসামান্য। সবমিলিয়ে বরাবরই আমাদের কৃষক ভাইয়েরা থেকে গেছে তালিকার অনেক নিচে।

যারা দেশের খাদ্যের চাহিদা পূরণ করে তাদের যদি অবহেলা করা হয় তবে তা মোটেও সমীচীন নয়। শুধু নগরায়ন-শিল্পায়ন দিয়ে দেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করা ‘বাতাসে ঘর বানানো’র শামিল। তাই কৃষকদের দেখভালসহ প্রতিটি খাতের যথাযথ মূল্যায়ন করতে হবে। ফসল পোড়ানোর মতো নেতিবাচক কাজ বন্ধে সরকারকেই ব্যবস্থা নিতে হবে। দেশের সব কৃষকের পণ্যে মুনাফাসহ ন্যায্য দাম নিশ্চিতে কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে শুরু করে স্থানীয় প্রশাসনকে এগিয়ে আসতে হবে। ভবিষ্যতে আর কোনো কৃষক যেন ফসল নষ্ট না করে, সেজন্য সুষ্ঠু তদারকি করতে হবে। যতদ্রুত সম্ভব এ জাতীয় সমস্যার সমাধান করতে হবে। এটাই দেশবাসীর দাবি।