রাসায়নিক জঙ্গি হামলার শঙ্কা

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫

রাসায়নিক জঙ্গি হামলার শঙ্কা

সতর্ক ব্যবস্থা জরুরি

সম্পাদকীয়-১ ১০:০১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৭, ২০১৮

print
রাসায়নিক জঙ্গি হামলার শঙ্কা

জঙ্গিবাদের তৎপরতা এখনো থামে নি, এজন্য দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিয়মিত অভিযান অব্যাহত রয়েছে। জঙ্গিবাদের শেকড় উপড়ে ফেলতে আমাদের অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। কারণ জঙ্গিবাদকে ন্যূনতম অবহেলা করার কোনো সুযোগ নেই।

খোলা কাগজে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, রাসায়নিক জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে সারা দেশের স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রগুলোতে বিশেষ সতর্কতা গ্রহণ করা হয়েছে। এজন্য হামলা মোকাবেলায় করণীয় প্রসঙ্গে চিঠি জারি করা হয়। চিঠিতে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো রাসায়নিক জঙ্গি হামলার আশঙ্কা করে বিভিন্ন পর্যায়ের গোয়েন্দা সূত্রগুলো থেকে সরকারকে সতর্ক করে দেওয়ার পর সারা দেশেই মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জেনারেল হাসপাতাল ও বিশেষায়িত স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলোকে সতর্কীকরণপত্র জারি করে স্বাস্থ্য বিভাগ।

চলতি সপ্তাহে এ ধরনের পত্র পেয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মহসিন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের চিঠি পাওয়ার কথা স্বীকার করেন। প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা এবং অধিদপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পক্ষ থেকে গত ২৬ আগস্ট এক পত্রের মাধ্যমে সারা দেশে সম্ভাব্য রাসায়নিক জঙ্গি হামলার আশঙ্কার কথাটি জানিয়ে এ বিষয়ে রাসায়নিক হামলার ক্ষেত্রে হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধার, প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান এবং বিশেষায়িত চিকিৎসা প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় সক্ষমতা অর্জন এবং প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে বলেও প্রতিবেদনে সুপারিশ তুলে ধরে এ ব্যাপারে জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম গ্রহণ করতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হয়।
এরই আলোকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীন স্বাস্থ্য বিভাগ, সরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা-১ বাংলাদেশ সচিবালয় থেকে মন্ত্রণালয়ের উপসচিব রেহানা ইয়াছমিন কর্তৃক স্বাক্ষরিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে পত্র দিয়ে এ বিষয়ে সম্ভাব্য জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা সংক্রান্ত প্রতিবেদনের সুপারিশের আলোকে কার্যক্রম গ্রহণের জন্য বলা হয়।

আমরা প্রত্যাশা করবো সম্ভাব্য জঙ্গি হামলা প্রতিরোধে সরকার অবশ্যই সব ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এ প্রেক্ষিতে জননিরাপত্তার জন্য যা যা করণীয় তা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সরকারকে কঠোর অবস্থানে থাকার জন্য আমরা আহ্বান জানাচ্ছি।