ঊর্ধ্বমুখী শেয়ারবাজার

ঢাকা, বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮ | ৯ কার্তিক ১৪২৫

ঊর্ধ্বমুখী শেয়ারবাজার

নিজস্ব প্রতিবেদক ৯:০৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮

print
ঊর্ধ্বমুখী শেয়ারবাজার

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে (বৃহস্পতিবার) বড় দরপতনের পর চলতি সপ্তাহের প্রথম কর্যদিবস রোববারে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি মূল্যসূচকের বড় উত্থান হয়েছে।

এদিন মূল্যসূচকের উত্থানের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম। আজ ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৮৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ৯৫টি। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টির দাম।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ায় রোববার ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২৬ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৬৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

অপর দুটি মূল্যসূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ৪ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৮৮৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৩৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ায় দেড় হাজার কোটি টাকারও উপরে বেড়েছে ডিএসইর বাজার মূলধন। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৮৭ হাজার ৬৮৪ কোটি টাকা। যা আগের কার্যদিবস শেষে ছিল ৩ লাখ ৮৫ হাজার ৯২৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ ডিএসইতে বাজার মূলধন বেড়েছে ১ হাজার ৬৫৭ কোটি টাকা।

মূল্যসূচক ও বাজার মূলধন বাড়লেও বাজারটিতে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫১৬ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫২৫ কোটি ৩৩ লাখ টাকা টাকার শেয়ার। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ৮ কোটি ৯১ লাখ টাকা।

এদিন টাকার অংকে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের শেয়ার। কোম্পানিটির ৪৪ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা কেপিসিএলের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৪১ কোটি ৩৫ লাখ টাকার। ৩১ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইফাদ অটোস।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- মুন্নু সিরামিক, অ্যাকটিভ ফাইন, বিবিএস কেবলস, ইনটেক, কনফিডেন্স সিমেন্ট, শাশা ডেনিম এবং এসকে ট্রিমস।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএসসিএক্স ২৫ পয়েন্ট বেড়ে ৯ হাজার ৯৮৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩২ কোটি ৭৩ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড ইউনিট। লেনদেন হওয়া ২৩২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের মধ্যে মাত্র ১১৯টির শেয়ারের দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ৮১টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির দাম।

 
.