বিকাশের গ্রাহকরা যেভাবে হ্যাকারের খপ্পরে পড়ে

ঢাকা, সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১ | ৫ মাঘ ১৪২৭

বিকাশের গ্রাহকরা যেভাবে হ্যাকারের খপ্পরে পড়ে

খোলা কাগজ ডেস্ক ১১:৩৮ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০২০

print
বিকাশের গ্রাহকরা যেভাবে হ্যাকারের খপ্পরে পড়ে

বিকাশ গ্রাহকরা মাঝে মাঝেই ফোনে কলটি রিসিভ করতেই শুনতে পায় একজনের কণ্ঠ ‘হ্যালো ভাইয়া আমি বিকাশের এজেন্ট বলছি, আপনার বিকাশ নম্বরে ভুল করে ২০ হাজার টাকা পাঠিয়েছি। কিছু না বুঝেই বিকাশ অফিসে একটা কমপ্লেইন করেছি আপনার নম্বরে, হয়তো অফিস থেকে ফোন দিতে পারে।’

কলটি কেটে দেয়ার এক মিনিটের মধ্যেই বিকাশের অফিসের নম্বরের পূর্বে প্লাস যোগ করে (+১৬২৪৭) ফোন আসে। ‘হ্যালো স্যার, আমি বিকাশ থেকে বলছি, আপনার নম্বরটি সাময়িক সময়ের জন্য ডি-অ্যাকটিভ করা হয়েছে। আপনার নম্বরটি পুনরায় সচল করতে হলে আপনার গোপন নম্বরটি বিকাশ নম্বরের সাথে যোগ করুন। এরপর আমাদের যোগফলটি বলুন।’

যোগফল বলার পরই নম্বর হ্যাক, সঙ্গে বিকাশে থাকা টাকা খোয়া যাবে। এভাবেই প্রতারিত হচ্ছেন বিকাশ গ্রাহকরা। এমন ই একটি ঘটনা ঘটেছে ঢাকা বিশ্যবিদ্যালয়ের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ইতি আফরোজের সাথে।

তিনি বলেন, ‘হুবহু বিকাশের নম্বর দেখে আমি ফোনটি রিসিভ করি। তবে অ্যাকাউন্ট ডি-অ্যাকটিভ হয়েছে এটি জানার আগেই আমার কাছে ফোনটি আসে। আমিও অকপটে বেশকিছু তথ্য দিয়ে দেই। এরপরই অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যায়, সেখান খেকে টাকাও চলে যায়।’

যেভাবে প্রতারণা করা হয়

প্রথমে বিকাশ এজেন্টদের কাছ থেকে কৌশলে বিকাশ নম্বর সংগ্রহ করে প্রতারকরা। এরপর এজেন্ট সেজে ফোন দেয়ার পর বিকাশ হটলাইনের (১৬২৪৭) সঙ্গে মিল রেখে +১৬২৪৭ কিংবা ০০১৬২৪৭ নম্বর থেকে ফোন দেয়া হয়। পরে নম্বরটি সাময়িক হ্যাক করে ডি-অ্যাকটিভ করা হয়। এরপর গ্রাহককে বলা হয়, বিকাশ নম্বর অ্যাকটিভ করতে আপনার গোপন পিন নম্বরের সাথে বিকাশ হটলাইন (১৬২৪৭) নম্বরটি গুন করে যোগফলটি জানান। যোগফলটি জানার পরই তারা হটলাইন অর্থাৎ ১৬২৪৭ নম্বর দিয়ে ভাগ করলেই পিন নম্বরটি চলে আসে।

প্রতারণার শিকার ইতি আফরোজ বলেন, ‘ বিকালের দিকে বিকাশের হট নম্বরের মতো নম্বর দেখে আমি ফোনটি রিসিভ করি। তাদের ভুল তথ্য যাচাইয়ের সময় পাইনি, এর মধ্যেই পরবর্তী ফোন এসে সব গোপন নম্বর তাদের কাছে চলে যায়। পরে যা হওয়ার তাই হলো...।’

তবে বিকাশ কর্মকর্তারা বলছেন, বিকাশ থেকে কোনো গ্রাহককে তথ্য জানতে ফোন দেয়া হয় না। তাছাড়া বিকাশের হটলাইন শুধু ১৬২৪৭ নম্বরে ফোন করে গ্রাকহ তথ্য জানা ও সেবা নিতে পারবেন। হটলাইনের নামে +১৬২৪৭, কিংবা ০০১৬২৪৭ নম্বরগুলো ফেক বা হ্যাকারের।