১৭শ’ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক

ঢাকা, রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০ | ১০ কার্তিক ১৪২৭

১৭শ’ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

print
১৭শ’ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক

গ্রামে নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশনের সুযোগ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশকে ২০ কোটি ডলারের (বাংলাদেশি মুদ্রায় এক হাজার ৭০০ কোটি টাকা) ঋণ অনুমোদন দিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে বিশ্বব্যাংকের সদর দফতরে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এই ঋণ অনুমোদন দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে সংস্থার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ রুরাল ওয়াটার, স্যানিটেশন অ্যান্ড হাইজিন ফর হিউম্যান ক্যাপিটাল ডেভেলপমেন্ট প্রকল্প বাস্তবায়নে এই ঋণ দেওয়া হবে। এর আওতায় গ্রামাঞ্চলের প্রায় ছয় লাখ মানুষকে বড় ও ছোট পাইপের মাধ্যমে নিরাপদ ও সুপেয় পানি সরবরাহ করা হবে। এছাড়াও প্রকল্পটির আওতায় ৩৬ লাখেরও বেশি গ্রামীণ মানুষকে উন্নত পয়ঃনিষ্কাশন সুবিধা সরবরাহ করা হবে। এই ২০ কোটি ডলার ঋণ দুই শতাংশ সুদসমতে পাঁচ বছরের রেয়াতকালসহ ৩০ বছরে পরিশোধ করতে হবে।

এ বিষয়ে বিশ্বব্যাংকের বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি টেম্বন বলেন, পানি ও স্যানিটেশনের মান ও নিরাপদ পানি স্যানিটেশন ও মানবসম্পদ উন্নয়নের মধ্যে যে যোগসূত্র সেটিতে বাংলাদেশের সামনে চ্যালেঞ্জ রয়ে গেছে। এ প্রকল্পটি পরিষ্কার পানি এবং স্যানিটেশন সেবা দেবে, যা ডায়রিয়াজনিত রোগ ও পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের মধ্যে অপুষ্টিজনিত প্রতিবন্ধিতা কমাবে এবং পুষ্টি ও স্বাস্থ্যের মান উন্নত করবে।

প্রকল্প প্রধান ও বিশ্বব্যাংকের জ্যেষ্ঠ পানি বিশেষজ্ঞ রোকেয়া আহমেদ বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনাময় দেশগুলোর তালিকায় বাংলাদেশ অন্যতম। আবহাওয়া ও জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে পানির গুণমান এবং সহজলভ্যতা কমেছে। এ প্রকল্পটি প্রকৃতি থেকে বিশুদ্ধ পানির সুযোগ এবং স্যানিটেশন সুবিধা তৈরি করবে। সেই সঙ্গে ভূপৃষ্ঠের জলাবদ্ধতা এবং ভূগর্ভস্থ পানির দূষণ কমাতে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা উন্নত করবে।

প্রকল্পের মাধ্যমে প্রায় দেড়শ নারী উদ্যোক্তাকে ঘরে ঘরে স্যানিটারি ন্যাপকিন বিক্রয় করার জন্য ক্ষুদ্র ঋণ দেওয়া হবে। ময়মনসিংহ, রংপুর, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের ৭৮টি উপজেলায় এ প্রকল্প চলবে।