উল্টো পথে সুদহার

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০ | ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭

উল্টো পথে সুদহার

নিজস্ব প্রতিবেদক ১:১৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৯

print
উল্টো পথে সুদহার

ব্যাংকঋণের সুদহার এক অঙ্কে নামিয়ে আনতে দেড় বছর ধরে চলছে নানা আলোচনা। সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে নানা সুযোগ-সুবিধা। তারপরও কাজ হয়নি।

ঋণের সুদহার উল্টো বাড়ছে। সুদহার কমাতে মুদ্রাবাজার পর্যালোচনা জরুরি। এজন্য ঋণ ও আমানতের পরিমাণ ও সুদহারসহ বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা হচ্ছে। এগুলো হাতে পেলে তা যাচাই-বাছাই করে সুদহার কমানোর করণীয় বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে।

গত মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকে সুদহার এক অঙ্কে নামিয়ে আনতে গঠিত সাত সদস্যের কমিটির প্রথম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। ডেপুটি গভর্নর এস এম মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে বৈঠকে অংশ নেয়া কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- অগ্রণী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. জায়েদ বখত, ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি ও স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের চেয়ারম্যান কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ, রূপালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এবং অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) চেয়ারম্যান সৈয়দ মাহবুবুর রহমান, আইএফআইসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহ আলম সরওয়ার ও এনআরবি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মেহমুদ হোসেন।

বৈঠকের বিষয়ে মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের এমডি ও এবিবি চেয়ারম্যান সৈয়দ মাহবুবুর রহমান জানান, কীভাবে সুদহার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনা যায় এ বিষয়ে আজকে প্রথম মিটিং হয়েছে। বর্তমানে ঋণ ও আমানতের সুদহার কি অবস্থায় আছে, কোন খাতে কত টাকা ঋণ আছে ও আমানত আসছে, এছাড়া কোন খাতে কত টাকা ঋণের সুদ ধার্য আছে, এসব তথ্য সংগ্রহ করা হবে এবং তা যাচাই-বাছাই করা হবে। এরপর মুদ্রাবাজার পর্যালোচনার পর কমিটি পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে।

বৈঠকে উপস্থিত কমিটির আরেক সদস্য কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ জানান, আমরা চেষ্টা করছি কীভাবে সুদহার কমানো যায়। এখন উভয় দিক বিবেচনা করে বাস্তবমুখি সিন্ধান্ত নিতে হবে।