আজ মতিঝিল ছাড়ছে ডিএসই

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

আজ মতিঝিল ছাড়ছে ডিএসই

নিজস্ব প্রতিবেদক ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ০৩, ২০১৯

print
আজ মতিঝিল ছাড়ছে ডিএসই

দেশের বৃহৎ পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সটেঞ্জ (ডিএসই) আজ থেকে মতিঝিল ছেড়ে রাজধানীর নিকুঞ্জে নিজস্ব ভবনে কার্যক্রম শুরু করছে। এরই মধ্যে মতিঝিলের অফিস থেকে প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিকুঞ্জের ভবনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ডিএসইর সংশ্লিষ্ট সূত্রে গতকাল শনিবার এ তথ্য জানা গেছে। সূত্র জানায়, নিকুঞ্জের নিজস্ব ভবনে গেলেও ডিএসইর কয়েকটি বিভাগের কার্যক্রম আরও কিছুদিন মতিঝিলের অফিসে হবে।

এর মধ্যে ট্রেনিং ও প্রকাশনা বিভাগ আরও ১৫ দিনের মতো মতিঝিলে থাকবে। আর আইটি বিভাগ এক বছরের মতো মতিঝিলে থাকবে। এ কয়টি বিভাগ ছাড়া বাকিগুলো রোববার (আজ) থেকে নিকুঞ্জের নিজস্ব ভবনে কার্যক্রম চালাবে।

জানা যায়, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর ১৯৯৬ সালে চার কোটি টাকায় রাজধানীর খিলক্ষেত-নিকুঞ্জ এলাকায় চার বিঘা জমি বরাদ্দ পায় ডিএসই। ওই জমিতেই ডিএসইর নিজস্ব ১৩তলা ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।

ডিএসইর ২০১১-২০১২ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, বহুতল ভবনটির সম্ভাব্য নির্মাণ ব্যয় ধরা ছিল ১৩২ কোটি টাকার বেশি। নকশা অনুযায়ী ভবনের আয়তন ৭ লাখ ৪১ হাজার ১০৯ বর্গফুট। ভূগর্ভস্থ তিনতলা গাড়ি পার্কিংয়ের স্থান বাদে মূলভবন হবে ১৩ তলা। এর প্রথম দুই তলায় ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, সাব-স্টেশন, লবি, মিডিয়া সেন্টারসহ অন্য প্রতিষ্ঠান থাকার কথা রয়েছে। চতুর্থ তলা ডিএসইর অফিসের জন্য বরাদ্দ রাখা। পঞ্চম তলা থেকে ১১ তলায় ব্রোকারেজ হাউস ও পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট অন্য প্রতিষ্ঠান থাকবে। অডিটোরিয়ামের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১২ তলার কিছু অংশ ও ১৩ তলা।

২০০৭ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা ড. ফখরুদ্দীন আহমেদ। ওই বছর ২৮ মার্চ ডিএসইর তৎকালীন সভাপতি শাকিল রিজভী আনুষ্ঠানিকভাবে নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।