মশার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি চায় সিদ্ধিরগঞ্জবাসী

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১ | ৭ বৈশাখ ১৪২৮

মশার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি চায় সিদ্ধিরগঞ্জবাসী

ইসমাইল হোসেন মিলন, সিদ্ধিরগঞ্জ ৪:০৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১

print
মশার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি চায় সিদ্ধিরগঞ্জবাসী

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে মশার যন্ত্রাণায় অতিষ্ঠ হয়ে পরেছে সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকাবাসী। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মোট ২৭টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১০টি ওয়র্ড সিদ্ধিরগঞ্জে অবস্থিত। দিনে মশা। রাতেও মশা। দিনের বেলা মশা একটু কম হলেও সন্ধ্যা না হতেই মশার উপদ্রপ বেড়ে যায়। মশাই যেন এখন নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে দাঁড়িয়েছে সিদ্ধিরগঞ্জবাসীর! পর্যাপ্ত ঔষুধ না ছিটানোয় সিদ্ধিরগঞ্জে মশার উপদ্রব বাড়ছে বলে সংশ্লিষ্টরে অভিমত।

জানা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জে মাঘের অন্তিম মূহুর্ত থেকে ব্যাপকভাবে মশার উপদ্রব বেড়েছে। তবে মশা নিধনে ওষুধ ছিটানোর কোন উল্লেখযোগ্য কার্যক্রম লক্ষ্য করা যায়নি।

নাসিক সিদ্ধিরগঞ্জের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মিজমিজি এলাকার বাসিন্দা রাকিব হাসান বলেন, মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছি। কোথাও এক মিনিট নিরাপদে বসতে পারছি না।

অপরদিকে নাসিক ৬ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা শিউলি আক্তার বলেন, দিনের বেলা মশা একটু কম হলেও সন্ধ্যা না হতেই মশা বেড়ে যায়। ইলেকট্রিক ব্যাট, অ্যারোসল, কয়েল জ্বালিয়েও মশার অত্যাচার থেকে রেহাই পাচ্ছি না। আগে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে নিয়মিত মশার ওষুধ ছিটানো হতো। কিন্তু কয়েক মাস ধরে এ কার্যক্রম লক্ষ্য করা যাচ্ছে না।

সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি পাইনাদী পূর্বপাড়ার এলাকার সমাজকর্মী সাইফুল ইসলাম বলেন, মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছি। দীর্ঘদিন সিটি করপোরেশনের মশা নিধন কার্যক্রম এলাকায় না থাকায় দিন দিন মশা এতোটাই অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠছে যে, ঘরোয়াভাবে মশা নিধন করা যাচ্ছে না।

সিটি করপোরেশনের কাছে সিদ্ধিরগঞ্জবাসীর দাবি, মশার যন্ত্রণা থেকে বাঁচতে অতি দ্রুত মশা নিধনে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার। নাসিক সিদ্ধিরগঞ্জের ১০টি ওয়ার্ডে ফগার মেশিন দিয়ে মশা নিধন করা এবং ড্রেনগুলো পরিষ্কার করা।

এ বিষয়ে নারায়গঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল আমিন খোলা কাগজকে বলেন, মশা নিধনের ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখছে নাসিক। সিদ্ধিরগঞ্জের প্রতিটি ওয়ার্ডে মশার উপদ্রব কমাতে খুব শীঘ্রই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।