ফরিদপুরে নতুন করে ২১ জনের করোনা শনাক্ত

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৯ আশ্বিন ১৪২৭

ফরিদপুরে নতুন করে ২১ জনের করোনা শনাক্ত

ফরিদপুর প্রতিনিধি ৪:১১ অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০২০

print
ফরিদপুরে নতুন করে ২১ জনের করোনা শনাক্ত

ফরিদপুরে গত ২৪ ঘন্টায় মা-মেয়ে, বাবা-ছেলে ও মুক্তিযোদ্ধাসহ আরও ২১ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে ফরিদপুর জেলায় করোনাভাইরাস শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৪৪ জন। আজ রোববার সকালে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

ফরিদপুরে নতুন করে যে ২১ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে তাদের মধ্যে ১৬ জন পুরুষ এবং ৫ জন নারী। 

ভাঙ্গা উপজেলায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ৯জন। এর মধ্যে রয়েছেন একজন মুক্তিযোদ্ধা (৬৫)। তিনি উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার। এছাড়াও আক্রান্ত হয়েছে বাবা (৪৮) ও ছেলে (৩০)।

ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা মোহসীন উদ্দিন ফকির জানান, উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নে ৩০ বছর বয়সী এক ব্যাক্তি করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তিনি মাদারীপুরে রাজৈর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দিয়েছিলেন। সে হিসেবে আজ রবিবার ভাঙ্গায় মোট ১০জনের করোনভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

ফরিদপুর সদরে আক্রান্ত হয়েছেন আটজন। এর মধ্যে রয়েছে মা (৪০) ও দুই মেয়ে (১৭) ও (১৩)। শহরের দক্ষিণ ঝিলটুলী এলাকার বহুতল বিশিষ্ট অবাসন ভবনে (৪৮) ও (৩৮) বছর বয়সী দুইজন আক্রান্ত হয়েছেন। দক্ষিন ঝিলটুলি ছাড়াও রবিবারে রিপোর্টে শহরের পশ্চিম খাবাসপুর, দক্ষিণ আলীপুরে আজ করোনা রুগী শনাক্ত হয়েছে।

নতুন করে শনাক্ত ২১ জনের মধ্যে ১০ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ২ জন, ২১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৪১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আছেন ৭ জন এবং ৬০ উর্ধে ১ জন।

ফরিদপুরের করোনা শনাক্তকরণ ল্যাব সূত্রে জানা গেছে গত ২৪ ঘন্টায় ফরিদপুর ও গোপালগঞ্জের মোট ২৭৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। মোট পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে ২৪ জন। এর মধ্যে ফরিদপুরে ২১ জন, রাজবাড়ীতে ২জন এবং গোপালগঞ্জে পুরনো একজন।

ফরিদপুরে মোট শনাক্ত ১৪৪ জনের মধ্যে বোয়ালমারীতে ৩৪ জন, ফরিদপুর সদরে ৩৬ জন, নগরকান্দায় ২১ জন, আলফাডাঙ্গায় ১৮, ভাঙ্গায় ২২, চরভদ্রাসনে ৫, সদরপুরে ৪, মধুখালীতে ৩ এবং সালথায় ১ জন।

ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান বলেন, ফরিদপুর, ভাঙ্গা, বোয়ালমারী ও আলফাডাঙ্গায় গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে যে ২১ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে তাদের প্রত্যেকের বাড়ি বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। আক্রান্ত সকলের শারীরিক অবস্থা যাচাই করা হচ্ছে। শনাক্তদের বাড়িতে রেখে কিংবা শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে ফরিদপুরের করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে স্থনান্তর করা হবে।