কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী

ঢাকা, শনিবার, ৩০ মে ২০২০ | ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী

ডেস্ক রিপোর্ট ১০:৫০ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ০২, ২০২০

print
কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে জনসমাগম ঠেকাতে কঠোর অবস্থান নিয়েছে সেনাবাহিনী। গতকাল বৃহস্পতিবার সারা দেশে সেনাবাহিনীর টহল আরও জোরদার করা হয়েছে। যারা সরকারি নির্দেশ অমান্য করবে তাদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছে সেনাবাহিনী। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে-

রাজশাহী : রাজশাহীতে জনসমাগম কমাতে, সামাজিক দূরত্ব বাড়াতে ও বাজার মনিটরিং করতে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও জেলা প্রশাসন পৃথক পৃথক ভাবে অভিযান চালাচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে কোয়ারেন্টাইন এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য কঠোর অবস্থানে রয়েছে সেনাবাহিনী। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে সেনাবাহিনী স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তার অংশ হিসেবে সারা দেশের ন্যায় রাজশাহীতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে এবং হোম কোয়ারেন্টাইনের বিষয়টি কঠোরভাবে নিশ্চিত করবে।

সরকার প্রদত্ত নির্দেশাবলী অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সিলেট : সিলেট নগরীর বিভিন্ন স্থানে সেনা টহল জোরদার করা হয়েছে। মহানগরসহ জেলার সকল উপজেলায় সামাজিক দূরত্ব ও সতর্কতা নিশ্চিতে প্রশাসনকে সহায়তা দিতে সিলেটে মাঠে কাজ করছে সেনাবাহিনীর ২০টি দল। টহলকালে সেনাবাহিনী হ্যান্ড মাইক দিয়ে সিলেটবাসীকে সরকারি নির্দেশনা মেনে ঘরে থাকার পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি কোনো ধরনের গুজবে কান না দিয়ে ঘরে থাকার আহ্বান জানাচ্ছেন। এছাড়া আতঙ্কিত না হওয়ার এবং সচেতন ও পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার পরামর্শও দিচ্ছেন তারা।

বগুড়া : করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে কঠোর অবস্থানে বগুড়া জেলা প্রশাসন। প্রয়োজনে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। মানুষদের ঘরে ফেরাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসক সেনা সদস্য, পুলিশ সদস্যসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশনা দিয়েছেন। সেই অনুযায়ী তারা কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন বগুড়া জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদ।

নাটোর : করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন করতে শহরে সেনা টহল অব্যাহত রয়েছে। তারা রাস্তায় অযথা ঘোরাঘুরি না করে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেন। যাদেরকে রাস্তায় দেখা গেছে তারা কেন রাস্তায় বের হয়েছেন তাও জানতে চান এবং যারা প্রয়োজন ছাড়া ঘোরাঘুরি করছিল তাদের বাড়ি চলে যেতে বলেন। তারা মাইকিং করে রাস্তায় বিনা কারণে ঘোরাঘুরি না করা এবং সব সময় মাস্ক পরিধান করারও পরামর্শ দেন।

গোপালগঞ্জ : গোপালগঞ্জে কঠোর অবস্থানে রয়েছে সেনাবাহিনী। জেলার বিভিন্ন স্থানে জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর কয়েকটি টিম কাজ করছে। এ সময় সেনা সদস্যরা অটোরিকশা, প্রাইভেটকার, রিকশা ও মোটরসাইকেলসহ চলাচলকৃত সব ধরনের যানবাহন দাঁড় করিয়ে চালক ও আরোহীদের মুখে মাস্ক আছে কি না, চালকদের হাতে গ্লাভস আছে কি না এসব পর্যবেক্ষণ করেন।

না থাকলে কঠোরভাবে নির্দেশ দেন এসব ব্যবহার করার জন্য। পাশাপাাশি প্রয়োজনে না অপ্রয়োজনে বের হয়েছে লোকজন সে বিষয়েও জিজ্ঞাসাবাদ করে সেনাবাহিনী। মোটরসাইকেলে মাত্র একজন চলাচল করতে পারবেন এবং অবশ্যই মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস থাকতে হবে। এর ব্যতিক্রম হলে কঠোর ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়ে দিয়েছে সেনাবাহিনী।