প্রতিবন্ধীর বাড়ি উচ্ছেদ করে শখের বাগান

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২ | ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

প্রতিবন্ধীর বাড়ি উচ্ছেদ করে শখের বাগান

ফরিদপুর প্রতিনিধি
🕐 ৬:৪৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০১, ২০১৯

প্রতিবন্ধীর বাড়ি উচ্ছেদ করে শখের বাগান

সুরম্য অট্টালিকা বাড়ির সামনে নদীর পাড়ে ফরিদপুর পাউবোর খাস জমি। সেখানে এক প্রভাবশালীর শখ হয়েছে গড়ে তুলবেন ফুলের মনোরম বাগান। আর এই বাগান নির্মাণের জন্য ওই জমিতে থাকা দীর্ঘ ৩৫ বছর যাবত বসবাসকারী এক প্রতিবন্ধী ব্যক্তির পরিবারকে সরিয়ে দিতে হবে। যথারীতি মিশন নিয়ে নেমে পড়লেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে শুক্রবার বিকাল পর্যন্ত প্রশাসনকে ব্যবহার করে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে সেখানে চাষাবাদ করে দেয়া হলো। আর এ অভিযান পরিচালনার করা হলো কোন রকম আগাম নোটিশ ছাড়াই বলে জানালেন ক্ষতিগ্রস্থরা। অভিযানকালে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের দেয়া হলো ওই খানে থাকাকালীন বিভিন্ন সময়ের অবৈধ কাজের অভিযোগ। তবে ওই প্রভাবশালী তাদেরকে এরই মধ্যে একটি সুন্দর ভালো প্রস্তাব দিয়ে দিয়েছেনও বটে। তার নিজের অন্য কোন জমিতে ৪ শতাংশ তাদেরকে থাকতে দেবেন।

এমনই হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার তালমা ইউনিয়নের শাকপালদিয়া এলাকায়। পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া কুমার নদীর খালের পাশে দীর্ঘ ৩২ বছর যাবত বসবাসকারী এক শারিরীক প্রতিবন্ধী ভিক্ষুক ব্যক্তির পরিবারকে ঘড়বাড়ি ভেঙ্গে উচ্ছেদ করলো উপজেলা প্রশাসন।

শারিরীক প্রতিবন্ধী মোজাহার সরদার জানান, প্রতিবেশী আশরাফ আলী ষড়যন্ত্র করে এই ঘটনা ঘটিয়েছেন। তার প্রভাবে প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিরা এই কাজ করেছেন। আমরা সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর লিখিত অনুমতি বাড়িঘর করেছি।

এ ব্যাপারে আশরাফ আলী মুন্সি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে এটা আমার কিছু করার নেই। তালমা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দেলোয়ারা বেগম জানান, পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই এমন কাজটি ইউনিয়নে করা হলো এটা দুঃখজনক।

ফরিদপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মামমুদ বলেন, ওই স্থানটি পাউবোর জায়গা। আমাদের দফতর থেকে তাদের থাকার অনুমতিও দিয়েছি কয়েক বছর আগে।

 
Electronic Paper