‘উগ্রবাদ মানবতার শত্রু’

ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘উগ্রবাদ মানবতার শত্রু’

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি ৭:২৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৯

print
‘উগ্রবাদ মানবতার শত্রু’

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছেন, ‘উগ্রবাদ মানবতা ও সকল ধর্মের শত্রু। উগ্রবাদের বিরুদ্ধে সাংস্কৃতিক ও সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের মাঝে সংস্কৃতি বোধটা গড়ে তুলতে পারলে বাংলাদেশে উগ্রবাদ কখনও মাথাচড়া দিয়ে উঠতে পারবে না।’

বুধবার বিকেলে কিশোরগঞ্জ সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে ‘উগ্রবাদ প্রতিরোধে গণমাধ্যমকর্মী ও সুশীল সমাজের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘যারা সরাসরি সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে আমরা কার্যক্রমগুলো চালিয়ে আসছি। এটি আপাতত নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সন্ত্রাসবাদ একটি মতাদর্শিক বিষয়। সন্ত্রাসবাদ আদর্শকে কেন্দ্র করে মানুষের মননে বাসা বাঁধে। ফলে এটি শুধু জেল জরিমানা করে বা সরাসরি কাউন্টার করে দমন করতে বা নির্মূল করতে পারব না। কারণ যে বীজটি মাথায় রোপণ করা হয়েছে সেটি শুধুমাত্র সরকার বা আইনশৃঙ্খলা এজেন্সির মাধ্যমে সরাসরি উৎখাত করা সম্ভব না। এজন্য দরকার জনসাধারণের মধ্যে কাউন্সিলিং ও সচেতনতা। কেউ সন্ত্রাসী হয়ে গেলে তাদের দমন করার দায়িত্ব আমাদের। উগ্রবাদী হওয়ার একক কোনো কারণ নাই। আমাদের সবচেয়ে বড় পাঠশালা পরিবার। আমরা পরিবারের সঙ্গে বসেছি। যারা উগ্রবাদের কারণে মারা গিয়েছে তাদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে কারণগুলো খুঁজে বের করতে চেষ্টা করেছি। পরিবারের সদস্যরাই প্রথমত উগ্রবাদের বিষয়টি টের পান। তারাই পারেন প্রথম অবস্থায় বিপথগামীদের ফিরিয়ে আনতে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের বার্তা যাতে সকল তরুণদের কাছে পৌঁছে যায় সে লক্ষ্যে আমরা কাজটি করছি। মসজিদের ঈমামগণ জুমার খুতবায় সহিংস উগ্রবাদ ও সন্ত্রাসবাদের বিপক্ষে বললে এবং ইসলামের সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নাই, তাহলে এ কথাগুলো যুব সমাজসহ সকলে শুনবেন ও মানবেন। যারা বিপথে গিয়েছে তাদের ফিরিয়ে আনা এবং আর যাতে না যেতে পারে সেদিকে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে আমরা কাজ করছি। উগ্রবাদে না ঝুঁকতে এন্টিবডি তৈরি করা জরুরী। সংস্কৃতিমনা, দেশপ্রেম, দেশের প্রতি দায়িত্ববোধ ও দেশের মানুষকে ভালোবাসার মাধ্যমে সকলের মধ্যে উগ্রবাদের বিরুদ্ধে এন্টিবডি তৈরি করতে হবে।’

এ সময় বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ, নরসিংদীর পুলিশ সুপার প্রলয় জোয়ারদার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম. এ আফজল, জিপি বিজয় শংকর রায়, জেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক এ. কে. এম শামছুল ইসলাম খান মাসুম, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক বিলকিছ বেগম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আতাউর রহমান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মামুন আল-মাসুদ খান, জেলা মহিলা সমিতির সভানেত্রী মায়া ভৌমিক, সাংবাদিক সাইফুল হক মোল্লা দুলু, আলম সারোয়ার টিটু, সাজন আহম্মেদ পাপন প্রমুখ।