লাঙ্গল বিক্রির ধুম

ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

লাঙ্গল বিক্রির ধুম

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি ৮:১০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৯

print
লাঙ্গল বিক্রির ধুম

আলু বীজ রোপনের মৌসুম সামনে রেখে সিরাজদিখান উপজেলায় লাঙ্গল বিক্রির ধুম পড়েছে। সিরাজদিখান বাজারে সাপ্তাহিক হাটের দিন লাঙ্গল কেনাকাটা করে চলেছেন কৃষকরা। সপ্তাহের প্রতি বুধবার ওই বাজারে লাঙ্গল নিয়ে পসরা বসিয়ে থাকেন বিক্রেতারা।

জানা গেছে, বর্ষা মৌসুম শেষ হতে না হতেই আলু বীজ রোপন মৌসুমের সামনে কৃষকরা প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি কেনাকাটা করছেন। এরই অংশ হিসেবে জমি প্রস্তুত করার লক্ষ্যে লাঙ্গল কেনাকাটার ধুম পড়েছে।

উপজেলার কয়েকটি গ্রামে লাঙ্গল তৈরি করা হয়ে থাকে। আর লাঙ্গল তৈরিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন মিস্ত্রীরা। একান্ত আলাপচারিতায় তারা জানিয়েছেন, তিনটি জিনিস দিয়ে তৈরি হয় লাঙ্গল। এর মধ্যে ইস, নাঙ্গল ও ফাল দিয়ে তৈরি হয় পূর্ণাঙ্গ একটি লাঙ্গল। এটি তৈরির অন্যতম একটি উপকরণ হচ্ছে কাঠ। আর কাঠের গুণগত মানের ব্যবধানের কারণে একেকটি লাঙ্গলের দাম একেক রকম হয়ে থাকে। সারেন্দ্র ও গাত দুই ধরনের লাঙ্গল বিক্রি হচ্ছে এক হাজার ২০০ থেকে দুই হাজার ৫০০ টাকা।

উপজেলার চম্পকদি গ্রামের কৃষক সোরহাব বলেন, আর ১০ থেকে ১৫ দিন পর থেকে আলু রোপন শুরু হবে। তাই জমি প্রস্তুত করার জন্য উপকরণ হিসেবে লাঙ্গলসহ আনুষঙ্গিক যন্ত্রপাতি কিনে নিচ্ছি। তবে গত বছরের তুলনায় এ বছর লাঙ্গলের দাম একটু বেশি।

পানিয়া খিলগাও গ্রামের বিক্রেতা মহাদেব মিস্ত্রি বলেন, আলু রোপন মৌসুম এলেই সিরাজদিখান বাজারে লাঙ্গল বিক্রির ধুম পড়ে। কৃষকরা বর্ষা মৌসুম শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে লাঙ্গল কেনাকাটা শুরু করে থাকেন। কৃষকদের চাহিদার কথা ভেবে বছরের এ সময়ে লাঙ্গল তৈরি করে থাকেন মিস্ত্রীরা।