কামারখাড়ায় আ.লীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি, ১৪৪ ধারা

ঢাকা, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

কামারখাড়ায় আ.লীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি, ১৪৪ ধারা

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি ২:১৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০১, ২০১৯

print
কামারখাড়ায় আ.লীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি, ১৪৪ ধারা

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলার কামারখাড়া ইউনিয়নে একই স্থানে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষ সমাবেশ ডাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত কামারখাড়া ইউনিয়নের সমাবেশ স্থলের আশেপাশের এলাকায় এ আদেশ বলবৎ থাকতে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসিনা আক্তার জানান।

এদিকে এ ঘটনায় সমাবেশ স্থলের আশেপাশের এলাকায় যে কোনো ধরনের সংঘাত এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশও মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসিনা আক্তার জানান, কামারখাড়া ইউনিয়নের ওয়ার্ড কমিটি ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই উত্তেজনা বিরাজ করছিল। ওয়ার্ড কমিটি ঘোষণার পক্ষে কামারখাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি আমীর হোসেন অবস্থান নিলেও সহ-সভাপতি আনিছ হালদার বিপক্ষে ছিলেন।

পরে এ ঘটনায় আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষ একই স্থানে সভা ডাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এখানে রাজনৈতিক সব কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে।

পামাপাশি পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

টঙ্গীবাড়ী থানার ওসি শাহ মোহাম্মদ আওলাদ হোসেন জানান, পাল্টা কর্মসূচি থাকায় নিষেধাজ্ঞার সার্বিক নিরাপত্তা বজায় রাখা হয়েছে।

এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জগলুল হাওলাদার ভূতু জানান, বিতর্কিত লোকদের দিয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নষ্টের চেষ্টা চলছে। প্রবীণ নেতারা অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতা মামুন পেয়াদাকে ১নং ওয়ার্ড সভাপতি ও রাজাকার ফজল কাউছারির ছেলে আজিমকে ২নং ওয়ার্ড সভাপতি করা হয়েছে। আমরা এর প্রতিবাদে সভা আহব্বান করেছি, এ নিয়ে ত্যাগী নেতারা মানববন্ধনও করেছেন।

কামারখাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আমির হোসেন বলেন, আমরা যোগ্য ব্যক্তিকেই ওয়ার্ড কমিটির পদ দিয়েছি। আমাদের বিরুদ্ধে করা মানববন্ধনের প্রতিবাদে আমরা সভা ডেকেছি। কিন্তু এ ঘটনায় দেখলাম প্রশাসন নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।