নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত

ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ১১:০০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০১৯

print
নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আবু সাইদ ছৈটকা (৩৫) এক ডাকাত নিহত হয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, তিনি ‘আন্তঃজেলা ডাকাতদলের সদস্য’। আবু সাঈদ আড়াইহাজার ও সোনারগাঁ থানার একাধিক মামলার আসামি বলে জানা গেছে। নিহত আবু সাঈদ জোকারদিয়া গ্রামের নাজিম মিয়ার ছেলে।

আজ (২৭ অক্টোবর) ভোরে আড়াইহাজার উপজেলার হাইজাদী ইউনিয়নের ইলুমদী গ্রামে এ ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। বন্দুকযুদ্ধে আহত হয়েছে ৪ জন পুলিশ।

শনিবার (২৬ অক্টোবর) বিকেলে উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের জোকারদিয়ায় তার নিজ বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর আজ ভোরে অন্য ডাকাত সদস্যদের আটক করতে ইলুমদী গ্রামে অভিযানে যায় পুলিশ। সেখানেই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বন্দুকযুদ্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে জানান, নিহত আবু সাইদের নামে আড়াইহাজার ও সোনারগাঁ থানায় আট থেকে দশটি ডাকাতির মামলা ছিল। শনিবার তাকে গ্রেফতারের পর তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী, রোববার ভোরে অন্য ডাকাত সদস্যদের আটক করতে ইলুমদী গ্রামে অভিযানে যায় পুলিশ। এসময় তাকে ছিনিয়ে নিতে আগে থেকে সেখানে উৎপেতে থাকা অন্য সদস্যরা পুলিশের ওপর হামলা ও গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে সহযোগী ডাকাতরা পিছু হটে। এসময় গুলিবিদ্ধ হয়ে আবু সাঈদ নিহত এবং পুলিশের চার সদস্য আহত হন।

আহত চার পুলিশ সদস্য হলেন- আড়াইহাজার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সিরাজ (৪৭), সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সবুজ চন্দ্র দাস (৩৮), কনস্টেবল লিটন মিয়া (২২) ও রফিকুল ইসলাম (৩৮)।

নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।