সেই টাকাও ভাগ বাটোয়ারা!

ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ধর্ষণের শাস্তি জরিমানা

সেই টাকাও ভাগ বাটোয়ারা!

সাভার প্রতিনিধি ১০:২৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০১৯

print
সেই টাকাও ভাগ বাটোয়ারা!

এক কিশোরী (১৩) ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে ধর্ষণকারীর কাছ থেকে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন সালিশকারীরা। সেই টাকা ভুক্তভোগীকে না দিয়ে ভাগ-বাটোয়ারা করে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে সালিশকারীদের বিরুদ্ধে। ঢাকার ধামরাই উপজেলার আমতা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

গত শুক্রবার এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করে। তবে ধর্ষণের মূল আসামি মোকসেদ আলী (৫০) এবং সালিশকারী ইউপি সদস্যসহ অন্যরা পলাতক।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত ৩০ জুলাই রাত ৮টার দিকে প্রতিবেশী ওই কিশোরীকে ঘরে ডেকে নেন উজালা নামের এক নারী। পরে তার স্বামী মোকসেদ ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে। একইভাবে আরও কয়েকবার ধর্ষণের ফলে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। গত ২১ অক্টোবর তার পরিবার এ ঘটনা জানতে পারে। গ্রামের প্রভাবশালীদের ঘটনাটি জানানো হলে গত সোমবার তারা সালিশ বসান। ওই সালিশে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় মোকসেদকে। পরে ওই টাকা সালিশকারীরা ভাগ-বাটোয়ারা করে নেন। এ ঘটনায় মুখ না খুলতে শাসিয়ে দিয়েছিল বলে ধর্ষিতের পরিবারের অভিযোগ।

মামলার অপর আসামিরা হলেন-আমতা ইউনিয়নের পরিষদের সদস্য মো. ফারুক হোসেন, আলামিন, দরবার আলী, চান মিয়া ও জসিম। এ বিষয়ে ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র রায় বলেন, ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবার করা মামলায় উজালা বেগম নামে এক নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মূল আসামি মোকসেদসহ জড়িত অন্যদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ওই কিশোরীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।