ফরিদপুরে কাটছে না ডেঙ্গুর শঙ্কা

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১ আশ্বিন ১৪২৬

ফরিদপুরে কাটছে না ডেঙ্গুর শঙ্কা

ফরিদপুর প্রতিনিধি ৫:৩৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩১, ২০১৯

print
ফরিদপুরে কাটছে না ডেঙ্গুর শঙ্কা

রাজধানীসহ সারা দেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ কিছুটা কমলেও ফরিদপুরে এখনও পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪৭ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে। বর্তমানে জেলার হাসপাতালগুলোতে ২৫৯ জন ভর্তি রয়েছেন। প্রতিদিনই আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়া মানুষের মধ্যে এখনও শঙ্কা বিরাজ করছে। তবে আতঙ্কিত না হয়ে সময়মত চিকিৎসা নেওয়া পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

সিভিল সার্জন ডা. মোহা. এনামুল হক জানিয়েছেন, গত ২০ জুলাই থেকে এ পর্যন্ত ফরিদপুরে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৮১৬ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি হয়েছেন ৪৭ জন। বর্তমানে ভর্তি আছেন ২৫৯ জন।

এছাড়া এক হাজার ২৫৯ জন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। ২৯১ জনকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছিল। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সরকারি হিসাবে শিশুসহ এ পর্যন্ত সাতজন ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

এর আগে, গত ৮ আগস্ট ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ৭০ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছিলেন। তখন পর্যন্ত বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছিলেন ৪৫৪ জন রোগী। চিকিৎসাধীন ছিলেন ২৭৯ জন। ১৬ আগস্ট ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ৬১ জন। ২০ আগস্ট ফরিদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ৭০ জন। ২১ আগস্ট ভর্তি হয়েছিলেন ৬৯ জন। ২২ আগস্ট ভর্তি হয়েছিলেন ৪৫ জন ডেঙ্গু রোগী। এছাড়া ২৪ আগস্ট ভর্তি হয়েছিলেন ২৫ জন। ২৫ আগস্ট ভর্তি হয়েছিলেন ৫০ জন।

২১ থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ৫০ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা হয়।

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে না আসায় অনেকটা শঙ্কার মধ্যেই দিন কাটাচ্ছে এ জেলার বাসিন্দারা। তবে সিভিল সার্জন ডা. মো. এনামুল হক জানান, হাসপাতালে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। রোগীর সংখ্যা না কমলেও সুস্থ হওয়ার সংখ্যা বেশি। ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে আতঙ্কিত না হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।