সংরক্ষিত বনে বিদ্যুতের খুঁটি

ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬

সংরক্ষিত বনে বিদ্যুতের খুঁটি

তানজেরুল ইসলাম, গাজীপুর ১০:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৮, ২০১৯

print
সংরক্ষিত বনে বিদ্যুতের খুঁটি

গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর বিরুদ্ধে সংরক্ষিত বনভূমিতে ফের অবৈধভাবে বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপনের অভিযোগ করেছে বন বিভাগ। এ ছাড়া বনে অবৈধভাবে বিদ্যুতের লাইন টানতে বাধা দেওয়ায় হুমকি-ধমকির শিকার হতে হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছে বন বিভাগ। যদিও এসব ঘটনায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর কেউ সম্পৃক্ত নয় বলে জেনারেল ম্যানেজার শাহ নেওয়াজ জানিয়েছেন।

ভাওয়াল রেঞ্জের রাজেন্দ্রপুর পশ্চিম বিট কর্মকর্তা রেজাউল করিম জানান, গত ৫ আগস্ট সকালে ৪নং বারইপাড়া মৌজার ১৭১১ সিএস দাগে অজ্ঞাতনামা কিছু ব্যক্তি বন বিভাগকে না জানিয়ে বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপন করে তার টানানোর কাজ শুরু করে। এ ঘটনায় বিধিসম্মতভাবে বন বিভাগ বাধা দেয়। পরবর্তীতে একই দিন দুপুরে অজ্ঞাতনামা কিছু সংখ্যক লোক রাজেন্দ্রপুর রেঞ্জ কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসে হুমকি-ধমকি দেয়। এ ঘটনায় গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর থানায় সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানান গেছে, ২০১৭ সালের ৩০ অক্টোবর তৎকালীন গাজীপুর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ফারজানা মান্নানের সভাপতিত্বে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তগুলো হলো- সংরক্ষিত বনের ভেতর দিয়ে বৈদ্যুতিক লাইন নির্মাণ/স্থাপন অথবা বিদ্যমান বৈদ্যুতিক লাইনের নিরাপত্তা সংরক্ষণ বা অন্য কোনো কারণে সংরক্ষিত বনের কোনো গাছ সম্পূর্ণভাবে কাটার প্রয়োজন হলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কর্তৃপক্ষ বন বিভাগকে জানাবে। প্রয়োজনে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ে লিখিত অনুমোদন সাপেক্ষে বৈদ্যুতিক লাইন স্থাপন করতে হবে। এ ছাড়া বৈদ্যুতিক লাইনের জন্য গাছের ডালপালা কাটার প্রয়োজন হলেও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বন বিভাগকে লিখিতভাবে জানানোর সিদ্ধান্ত হয় ওই সভায়।

এদিকে, ২০১৭ সালের ২৯ মার্চ পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ৩২তম সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তে ‘বন ও পরিবেশের ক্ষতিরোধকল্পে বনের অভ্যন্তরে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন এবং রাস্তা নির্মাণসহ যেকোনো উন্নয়ন প্রকল্প প্রণয়নের পূর্বে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে পরামর্শক্রমে প্রকল্প প্রণয়নের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগসহ সংশিষ্ট মন্ত্রণায়সমূহকে অবহিত করার সুপারিশ গ্রহণ করা হয়।

ঢাকা বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) শ্যামল কুমার ঘোষ জানান, নয়নপুর এলাকায় বিমানবাহিনী রোডে ও মার্কেট সংলগ্ন এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের লোকজন বিনা অনুমতিতে অবৈধভাবে জোরপূর্বক বনভূমিতে ছয়টি বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপন করেছে। খুঁটিগুলো অপসারণের জন্য পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জেনারেল ম্যানেজারের কাছে তিনি চিঠি পাঠিয়েছেন।

গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর জেনারেল ম্যানেজার শাহ নেওয়াজ জানান, বনে ভেতর দিয়ে বিদ্যুতের লাইন টানানোর ব্যাপারে একাধিকবার পল্লী বিদ্যুতের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সঙ্গে তার কথা হয়েছে। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ নিশ্চিত করতে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কাজ করছে। ভাওয়াল রেঞ্জ কর্মকর্তার কার্যালয়ে হুমকি-ধমকির ঘটনা ভিত্তিহীন এবং বানোয়াট বলেও তিনি দাবি করেন।