পাঁচ দিন পর গৃহবধূর মৃত্যু

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১ আশ্বিন ১৪২৬

স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে গায়ে আগুন

পাঁচ দিন পর গৃহবধূর মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি ১২:১২ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৯

print
পাঁচ দিন পর গৃহবধূর মৃত্যু

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের নির্যাতিতা গৃহবধূ জিয়াসমিন (৩৮) ৫ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে হেরে গেছেন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এর আগে গত ৭ জুন (শুক্রবার) দুপুরে শ্রীনগর উপজেলার শ্যামসিদ্ধি ইউনিয়নের সেলামতি গ্রামের গৃহবধূ জিয়াসমিন স্বামীর নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢামেক হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা নেওয়া হয়।

স্থানীয়দের বরাতে জানা যায়, জিয়াসমিন কোলাপাড়া ইউনিয়নের ব্রাহ্মণ পাইকসা গ্রামের মৃত আ. আজিজ চৌধুরীর মেয়ে। প্রায় ২৩ বছর আগে সেলামতি গ্রামের সিরাজুল ইসলামের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। তাদের সংসারে প্রতিবন্ধী এক মেয়ে ও মালয়েশিয়া প্রবাসী এক ছেলে রয়েছে। শ্রীনগর থানার ওসি মো. ইউনুচ আলী জানান, ঘটনার পর থেকে জিয়াসমিনের স্বামীসহ পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় গত সোমবার রাতে মেয়ের বড় ভাই মো. সিরাজুল ইসলাম আরিফ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

এদিকে, গত শনিবার বিকালে মুন্সীগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শ্রীনগর সার্কেল) মো. আসাদুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন।