নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু, ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা

ঢাকা, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১০ আশ্বিন ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু, ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা

সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি
🕐 ৭:১৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০২২

নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু, ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে নির্মাণাধীন একটি দশতলা ভবনের ৭ তলা থেকে লিফটের অংশ দিয়ে পড়ে ফাহিম (১৪) নামের কিশোর এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (১০ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জের নাসিক ৫ নং ওয়ার্ডের আইয়ুব নগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিকে ঘটনাস্থলেই ওই কিশোর শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।

নিহত ফাহিম কুমিল্লা জেলার নাঙ্গলকোট উপজেলার তারাচু গ্রামের মো: মনির হোসেনের ছেলে। ফাহিম সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি পাগলাবাড়ী এলাকায় দুলাল মিয়ার ভাড়াটিয়া বাসায় পরিবারের সাথে বসবাস করতেন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, নির্মাণাধীন ভবনটির কোন সেফটি না থাকায় এই দূর্ঘটনা ঘটেছে। তারা জানান ভবনটির একাধিক মালিক রয়েছে। তারা কোন ধরনের সেফটি ছাড়াই ভবনটি নির্মাণ করছে।

এদিকে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে পুলিশকে না জানিয়ে নিহতের পরিবারকে আর্থিক সহায়তার মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে লাশ গ্রামের বাড়ীতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায় ঠিকাদারের লোকজন। ভবনটিতে নিরাপত্তা নিশ্চিত না করেই কাজ করার অভিযোগ স্থানীয়দের।

সূত্রে জানা যায়, ভবনটির মালিক সিদ্ধিরগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রকৌশলী আমিনুলসহ ১৮ জন। নির্মাণ কাজ করছেন ঠিকাদার মো: ইকবাল হোসনের মালিকানাধীন ইমন কন্সন্ট্রাকশনের প্রতিষ্ঠান। ঘটনার পর পুলিশকে না জানিয়ে নিহতের পরিবারকে আর্থিক সহযোগীতার প্রলোভন দেখিয়ে লাশ নিজ বাড়ীতে পাঠিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালায় ভবন মালিক ও ঠিকাদারের লোকজন। খবর পেয়ে থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুর রাজ্জাক নিহতের ভাড়া বাড়ীতে গিয়ে আইনি প্রক্রিয়া শেষ না করে এভাবে লাশ নিতে বাধা দেন। এক পর্যায়ে অনেক দেনদরবারের পর নিহতের পিতার কোন অভিযোগ নেই নিশ্চিত হওয়ার পর আইনী প্রক্রিয়া শেষ করে বিকেলে লাশ গ্রামের বাড়ি কুমিল্লাতে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঠিকাদার ইকবাল হোসেন বলেন, সিমেন্টসহ বিভিন্ন রাবিশ পরিস্কার করে লিফটের অংশ দিয়ে নিচে ফেলার সময় ফাহিম পা ফসকে নিচে পড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই ফাহিমের মৃত্যু হয় বলে জানান তিনি।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান পিপিএম বার বলেন, নিহতের পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

 
Electronic Paper