পুষ্টিকর ওটস খিচুড়ি

ঢাকা, শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০ | ২৬ চৈত্র ১৪২৬

পুষ্টিকর ওটস খিচুড়ি

ডেস্ক রিপোর্ট ১:২৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০

print
পুষ্টিকর ওটস খিচুড়ি

ওটস খিচুড়ি -
ব্যস্ত জীবনে আমাদের প্রয়োজন পুষ্টিকর ও সুস্বাদু খাবারের রেসিপি যেটা ঝটপট বানিয়ে নেওয়া যায়। যারা হেলদি ফুড চার্ট মেনে চলেন, তাদের রেগ্যুলার ডায়েটে ওটস থাকবেই। বার বার একটাই অভিযোগ শোনা যায়, এটা খেতে ভালো লাগে না! কিন্তু প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় আমাদের সবারই ওটস রাখা উচিত। কেননা এতে আছে স্বাস্থ্যকর ফাইবার, প্রোটিনসহ আরো অনেক পুষ্টিগুণ।

ওটস কিভাবে রান্না করলে টেস্টি হবে, সেটা নিয়েই ভাবছেন তো? চিন্তা নেই! বিভিন্ন ধরনের সবজি দিয়ে খুব সহজে মজাদার ওটস খিচুড়ি রান্না করে নিতে পারেন। স্বাদ ও পুষ্টি পাবেন একসাথেই। আর এমনিতে খিচুড়ি আমাদের সবারই পছন্দের। তাহলে জেনে নিন, পুষ্টিকর ওটস খিচুড়ি রান্নার সবচেয়ে সহজ রেসিপিটি!

ওটস খিচুড়ি রান্নার পদ্ধতি
উপকরণ
ওটস- ১ কাপ
মুগডাল- ১/২ কাপ
গাজর টুকরো করে রাখা- ১/২ কাপ
ব্রকোলি টুকরো করে রাখা- ১ কাপ
মটরশুঁটি- ১/২ কাপ
টমেটো কুঁচি- ২ চা চামচ
রসুন বাটা- ১ চা চামচ
কাঁচামরিচ ফালি- ৫টি
আদা বাটা- ১ চা চামচ
লবণ- স্বাদমতো
হলুদ গুঁড়ো- ১ চা চামচ
জিরা গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ
ধনেপাতা- ২ চা চামচ
তেল– ১ চা চামচ
গরম মসলার গুঁড়ো- ১ চা চামচ
প্রস্তুত প্রণালী
১) প্রথমে শুকনা প্যানে ওটস ও মুগডাল হালকা করে টেলে রাখুন। এতে খিচুড়ির টেস্ট ভালো হয়।

২) বড় একটি প্যানে তেল গরম করে তাতে রসুন বাটা, হলুদ গুঁড়ো, আদা বাটা, জিরা গুঁড়ো ও লবণ দিয়ে কষিয়ে নিন। যেহেতু একদম কম পরিমাণে তেল ব্যবহার করা হয়েছে, তাই সামান্য পানি দিয়ে মসলা কষাতে হবে।

৩) এবার টুকরো করে কেটে রাখা গাজর, ব্রকোলি ও মটরশুঁটি দিয়ে মসলার সাথে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন।

৪) ভেজে রাখা ওটস ও মুগডালের সাথে পরিমাণমতো পানি যোগ করুন ও ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। যদি পাতলা খিচুড়ি খেতে চান, তাহলে একটু বেশি পানি দিতে হবে।

৫) চুলার আঁচ কমিয়ে রান্না করুন। পানি কিছুটা টেনে আসলে কাঁচামরিচ ফালি, টমেটো কুঁচি, ধনেপাতা ও গরম মসলার গুঁড়ো দিয়ে আবারো কিছু সময়ের জন্য দমে রাখতে হবে।

৬) সবজি ও ডাল সেদ্ধ হয়েছে কিনা চেক করে নিন। খিচুড়ির ঘনত্ব নিজের পছন্দমতো হলে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন।

ব্যস, সবজি দিয়ে গরম গরম ওটস খিচুড়ি তৈরি হয়ে গেল! চাইলে উপরে একটু লেবুর রস ছড়িয়ে দিন। দেখলেন তো, খুব সহজ রেসিপিতে চটজলদি বানিয়ে নিতে পারেন এই খাবারটি। যারা ডায়েট করছেন বা বাড়তি ওজন কমানোর জন্য চেষ্টা করছেন, তাদের জন্য একদম পারফেক্ট এই রেসিপিটি।