ফেনীতে রাইস ট্রান্সপ্লান্টারে ধানের চারা রোপণ

ঢাকা, রবিবার, ২২ মে ২০২২ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

ফেনীতে রাইস ট্রান্সপ্লান্টারে ধানের চারা রোপণ

সময়-অর্থ দুটোই সাশ্রয় হবে কৃষকের

ফেনী প্রতিনিধি
🕐 ৫:৩৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৫, ২০২২

ফেনীতে রাইস ট্রান্সপ্লান্টারে ধানের চারা রোপণ

ফেনীতে আধুনিক কৃষিযন্ত্রের সাহায্যে ধানের চারা রোপন শুরু হয়েছে। এতে কৃষকের সময় ও অর্থ দুটোরই সাশ্রয় হবে। সোমবার বিকালে জেলার ফুলগাজী সদর ইউনিয়নের দক্ষিণ শ্রীপুর গ্রামের ফিরোজ আহম্মেদের একটি জমিতে এই যন্ত্রের সাহায্য ধানের চারা রোপণ উদ্বোধন করে কৃষি বিভাগ।

কৃষি বিভাগ সূত্র জানায়, ধানের চারা রোপনের মৌসুম শুরু হলে কৃষকরা বেশির ভাগ চিন্তিত থাকে শ্রমিক নিয়ে। শ্রমিক সংকটের কারণে কৃষকরা ধান রোপন নিয়ে প্রতিবছরই বিপাকে পড়েন। কৃষিযন্ত্রে জমিতে ধানের চারা লাগাতে সময় লাগে কম, খরচও কম। আগে বিঘা প্রতি ধানের চারা রোপনে অন্তত ৬ জন শ্রমিকের জন্য খরচ হতো তিন হাজার টাকার মত, সময় লাগতো একদিন । কিন্তু এই মেশিনে ১ ঘন্টার মধ্যে ১বিঘা জমিতে ধানের চারা রোপন করা সম্ভব, খরচ দুই হাজার টাকারও কম হবে। এতে খরচ ও সময় দুইটো বাঁচে।

সোমবার বিকালে দক্ষিণ শ্রীপুর মাঠে ফিরোজ আহম্মেদের জমিনে পরীক্ষামূলকভাবে ধানের চারা রোপন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ফেনীর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তারিক মাহমুদুল ইসলাম প্রধান অতিথি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন । তিনি বলেন, এই কৃষিযন্ত্রের সাহায্যে খুব সহজেই ধানের চারা রোপন করা যায়। এতে কৃষকের ধানের চারা রোপণের সময় ও অর্থ দুটোই সাশ্রয় হবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ রানার সভাপতিত্বে এসময় অতিরিক্ত উপ পরিচালক মো. জালাল উদ্দীন, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো. সরোয়ার হোসেন, উপজেলা উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা লুৎফুল হায়দার ভূঞা উপস্থিত ছিলেন।

ফুলগাজী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ রানা বলেন, ধান রোপন যন্ত্র (রাইস ট্রান্সপ্লান্টার) এই প্রথম জেলার ফুলগাজী উপজেলায় চালু হয়েছে। তবে ব্লক প্রদর্শনীর মাধ্যমে একসাথে পঞ্চাশ একর (১৫০ বিঘা) জমিনে করা হবে। এই মেশিনের সাহায্য খুব সহজেই ধানের চারা রোপন করা যায়। এতে খরচ কম হয় ও সময় কম লাগে। পাশাপাশি অল্প সময়ের মধ্যে সারিবদ্ধ ভাবে চারা সুন্দরভাবে জমিতে রোপণ করা যায়। তাই আধুনিক যন্ত্রের সাহায্যে চাষাবাদ করলে কৃষকরা অবশ্যই লাভবান হবেন।
 
Electronic Paper