ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বেড়েছে যাত্রীবেশে গাড়িতে ছিনতাই

ঢাকা, সোমবার, ১ মার্চ ২০২১ | ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বেড়েছে যাত্রীবেশে গাড়িতে ছিনতাই

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি ৪:৩০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২২, ২০২১

print
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বেড়েছে যাত্রীবেশে গাড়িতে ছিনতাই

দেশের ব্যস্ততম ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বিভিন্ন গাড়িতে যাত্রীবেশে ছিনতাইয়ের ঘটনা বেড়ে চলছে। এতে আতঙ্কের মধ্যে গাড়িতে চলাচল করতে হচ্ছে অনেক যাত্রীকে। বিশেষ করে মাইক্রো গাড়িতে এসব ছিনতাইয়ের ঘটনা বেশি ঘটছে। তাই অপরিচিত এসব গাড়ি এড়িয়ে চলতে অনুরোধ করেছেন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কর্মকর্তারা।

 

 

সথানীয় জোরারগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ মো. ফিরোজ উদ্দিন বলেন, ইদানীং ছিনতাইয়ের ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় বারইয়ারহাটে সন্ধ্যার পর আমাদের কয়েকটি টিম কাজ করছে। আমাদের জনবল সংকট রয়েছে। তারপরও আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, চালক, পথচারী ও যাত্রীদের সচেতনতায় লিফলেট বিতরণসহ নানা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে হাইওয়ে পুলিশ। অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতি এড়াতে সচেতনতার বিকল্প নেই। অপরিচিত প্রাইভেট কার বা গাড়িতে না ওঠাই উত্তম।

জানা গেছে, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে মিরসরাই, বারইয়ারহাট-সীতাকু-ে যারা প্রতিদিন গাড়িতে যাওয়া-আসা করেন তাদের টার্গেট করেন সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী দল। সপ্তাহের শেষ কর্মদিবস বৃহস্পতিবার বিভিন্ন চাকরিজীবী তাড়াহুড়ো করে ছুটিতে যাওয়া ও গাড়িতে যাত্রীদের বেশি চাপ থাকার সুযোগ নিয়ে কৌশলে ওইদিন ছিনতাইয়ের ঘটনা বেশি ঘটায়।

মহাসড়কে চলাচলকারী চালকসহ সংশ্লিষ্ট ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মহাসড়কের বিভিন্ন অংশে ইদানীং যাত্রীবেশে ছিনতাই বেড়েছে। ছিনতাইকারীদের খপ্পরে পড়ে যাত্রীরা সর্বস্ব হারাচ্ছেন, কখনো কখনো আহত হচ্ছেন। পুলিশের সঙ্গে হাইওয়ে পুলিশের সমন্বয়হীনতার কারণে ভুক্তভোগীরা কোনো ধরনের প্রতিকার পাচ্ছেন না।

মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন পয়েন্টে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ক্যাম্প না থাকা এবং নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের স্বল্পতার কারণে বেশিরভাগ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

তবে কয়েকজন ভুক্তভোগী যাত্রী বলেন, ছিনতাই রুখতে পুলিশকে আরও দায়িত্বের সঙ্গে তৎপরতা বাড়াতে হবে।