কারাগারে বিয়ের পর, ধর্ষণ মামলার আসামির হাইকোর্টে জামিন

ঢাকা, শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১ | ১০ মাঘ ১৪২৭

কারাগারে বিয়ের পর, ধর্ষণ মামলার আসামির হাইকোর্টে জামিন

জেলা প্রতিনিধি ১:৩৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩০, ২০২০

print
কারাগারে বিয়ের পর, ধর্ষণ মামলার আসামির হাইকোর্টে জামিন

ফেনীর কারাগারে বিয়ে হওয়া ধর্ষণ মামলার আসামি জহিরুল ইসলাম জিয়াকে এক বছরের জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। ৩০ নভেম্বর, সোমবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আসামির আইনজীবী ফারুক আলমগীর চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ফেনীর ধর্ষণ মামলার আসামি জিয়া কারাগারে থেকে বিয়ে করে মুক্তির জন্য জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন। ১৯ নভেম্বর ফেনীর কারাগারে আসামির সঙ্গে বিয়ে হয় ধর্ষণের অভিযোগকারী তরুণীর। মামলার আসামি জহিরুল ইসলাম ওরফে জিয়া উদ্দিনের বাড়ি ফেনীর সোনাগাজীর চরদরবেশ ইউনিয়নের দক্ষিণ পশ্চিম চর দরবেশ গ্রামে।

গত ২৭ মে জেলার সোনাগাজীর চরদরবেশ এলাকার এক তরুণী তার প্রেমিক জহিরুল ইসলাম জিয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করে মামলা করেন। গত ২৯ মে জিয়াকে গ্রেফতার করে সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশ।

বিচারিক আদালতে ব্যর্থ হয়ে জিয়ার জামিনের জন্য হাইকোর্টে আবেদন করেন তিনি। পরে গত ১ নভেম্বর বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চ আদেশ দেন জিয়া ওই মেয়েকে বিয়ে করলে জামিনের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে। ওই আদেশের পরই ফেনী জেলা কারাগারে তাঁদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।