মীরসরাইয়ে করোনার স্বাস্থ্যবিধি না মানার অভিযোগ

ঢাকা, রবিবার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১ | ৪ মাঘ ১৪২৭

মীরসরাইয়ে করোনার স্বাস্থ্যবিধি না মানার অভিযোগ

ইকবাল হোসেন জীবন, মীরসরাই (চট্টগ্রাম) ৫:৪৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০

print
মীরসরাইয়ে করোনার স্বাস্থ্যবিধি না মানার অভিযোগ

শীতে দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা। সরকারের সর্বোচ্চ মহল থেকে জনসচেতনতার পাশাপশি নেওয়া হচ্ছে ব্যাপক প্রস্তুতি। যার মধ্যে সকল সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালকে পূর্বপ্রস্তুতি হিসেবে নয়টি বিশেষ নির্দেশনাও দিয়েছে সরকার। এসব নির্দেশনা বাস্তবায়নে মাঠ পর্যায়ে নেই কোনো প্রস্তুতি।

চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলা এলাকায় এসব নির্দেশনা বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট বিভাগের কোনো উদ্যোগ নেই। ন্যূনতম স্বাস্থ্যবিধিও মানছে না এখানকার অধিকাংশ হাসপাতাল-ক্লিনিক।

চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি জানান, নির্দেশনাগুলো মাঠ পর্যায়ে পাঠানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এগুলো বাস্তবায়ন করা হবে।

অন্যদিকে, বেসরকারি হাসপাতালে নতুন নয়টি নির্দেশনা বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে মীরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমরা মিটিং করে হাসপাতালগুলো নির্দেশনা দিয়েছি। বিষয়টি আমরা সরাসরি গিয়ে তদারকি করব।’ 

জানা গেছে, মীরসরাই উপজেলার বারইয়াহাট পৌরসভা, মীরসরাই পৌরসভা ও মিঠাছরা বাজার এলাকায় মোট নয়টি বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিক বাণিজ্যিকভাবে স্বাস্থ্য চিকিৎসা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। যার কোনোটিতে কোভিড রোগীর জন্য পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহ ব্যবস্থা নেই। নেই কোভিড-১৯ রোগীর চিকিৎসার জন্য পৃথক ব্যবস্থা।

এখানকার বেশ কিছু হাসপাতালে মানা হচ্ছে না ন্যূনতম স্বাস্থ্যবিধি। বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেই সরকারে নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী ফ্লু কর্ণার, ট্রায়াজ সিস্টেম ও কোভিড রোগীদের জন্য আলাদা শয্যা সম্প্রসারণের। এর আগে গত ২২ অক্টোবর চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনলাইন জুম মিটিং এ কোভিড-১৯ দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ রোধে সরকারের নেওয়া ৩০ নির্দেশনা বাস্তবায়নের নির্দেশ দেন তৃণমূল প্রশাসনকে।

এদিকে মীরসরাই বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক অনার্স এসোসিয়েশনের সম্পাদক মো. নিজাম উদ্দিন দাবি করেন, সরকারের তরফ থেকে আমরা এ ধরণের কোনো নির্দেশনা পাইনি। তবে এখানকার হাসপাতালগুলো সাধারণ স্বাস্থ্যবিধি মানা ছাড়াও জরুরি অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিত করেছে।

এছাড়া আমরা হাসাতাল মালিকরা ইতোমধ্যে সমগ্র উপজেলায় বিনামূল্যে জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ, জনসচেতনতায় মাইকিং কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছি।