ফেনীতে ধর্ষণবিরোধী লংমার্চে হামলা, আহত ১০

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০ | ৫ কার্তিক ১৪২৭

ফেনীতে ধর্ষণবিরোধী লংমার্চে হামলা, আহত ১০

ফেনী প্রতিনিধি ১:১৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৭, ২০২০

print
ফেনীতে ধর্ষণবিরোধী লংমার্চে হামলা, আহত ১০

ঢাকা থেকে যাওয়া ধর্ষণ ও নিপীড়ন বিরোধী লংমার্চের সমর্থনে ফেনী শহীদ মিনারে আয়োজিত সমাবেশে হামলা হয়েছে। এতে ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেলসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। ১৭ অক্টোবর, শনিবার সকাল ১১টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে সমাবেশে শেষে যখন লংমার্চ সমর্থকরা ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন এ সময় হামলা করেন দুর্বৃত্তরা। এ সময় সমর্থকদেরকে রড, চাপাতিসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আঘাত করেন তারা। এতে ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতিসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে উদীচী, যুব ইউনিয়ন, ছাত্রফ্রন্টের কর্মীরাও রয়েছেন। এ সময় লংমার্চের বহরে থাকে তিনটি গাড়িও ভাঙচুর করেন দুর্বৃত্তরা। গুরুতর আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে লংমার্চে থাকা সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি আল কাদরি জয় জানান, ফেনীতে সমাবেশ শেষে নোয়াখালীর উদ্দেশে বাসে ওঠার সময় লাঠিসোঁটা ইট নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। এতে  অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, ধর্ষণ ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী গণজাগরণ তৈরির লক্ষ্যে শুক্রবার নোয়াখালীর পথে এই লংমার্চ শুরু করে ‘ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’। শনিবার বিকালে নোয়াখালী শহরে সমাবেশের মধ্য দিয়ে এই কর্মসূচি শেষ হবে।