কুমিল্লায় করোনায় দুইজনের মৃত্যু

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৩ আশ্বিন ১৪২৭

কুমিল্লায় করোনায় দুইজনের মৃত্যু

কুমিল্লা প্রতিনিধি ৮:১৮ অপরাহ্ণ, মে ২৬, ২০২০

print
কুমিল্লায় করোনায় দুইজনের মৃত্যু

কুমিল্লার চান্দিনা ও দেবিদ্বারে করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে নতুন করে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ২২ জনে। মঙ্গলবার (২৬ মে) জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

জেলা সিভিল সার্জনের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে মঙ্গলবার বিকেলে নতুন করে আরও ৩৭ জন করোনায় আক্রান্ত ও দুইজনের মৃত্যুর তথ্য জানানো হয়েছে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে মুরাদনগরে ৮জন, চান্দিনায় ১৪, বরুড়ায় দুইজন, লাকসাম পাঁচজন, সিটি করপোরেশন এলাকায় চারজন এবং হোমনা, মেঘনা, দেবিদ্বার ও মেডিক্যাল কলেজে একজন করে রয়েছেন।

এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬৭২ জনে। সুস্থ হয়েছেন ৯৬ জন। নতুন করে চান্দিনায় মান্নান খান এবং দেবিদ্বারের রাজামেহার ইউনিয়নের গাংচর গ্রামের মোর্শেদ আলম করোনায় মারা গেছেন। এ পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে সাত হাজার ৪৫১ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ছয় হাজার ৮৩৭ জনের রিপোর্টে ৬৭২ জনের পজিটিভ এসেছে।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ঈদের দিন (২৫ মে) রাতে চান্দিনা উপজেলা সদরের পৌর এলাকার মহারং নিজ বাসভবনে মারা যান অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল মান্নান খান (মুনাফ)। তিনি উপজেলার ভোমরকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষক ছিলেন। এর আগে ২৪ মে (রোববার) রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) থেকে তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। ওই দিনই নিহতের পরিবারের আরও পাঁচ সদস্যের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

২৬ মে সকালে চান্দিনা উপজেলার ভোমরকান্দি খান বাড়িতে দূরত্ব বজায় রেখে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মরহুমের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশ ও চান্দিনা থানা পুলিশসহ এলাকাবাসী জানাজায় অংশ নেন। পরে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

এসময় চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) স্নেহাশীষ দাশ ও মরহুমের ছেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মাহবুব আলম খানসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন

এদিকে, কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলায় ২২ মে মারা যাওয়া মোর্শেদ আলমের (৬৫) রিপোর্টে পজেটিভ এসেছে। তার বাড়ি দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহার ইউনিয়নের গাংচর এলাকায়। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আহাম্মদ কবীর এ তথ্য জানিয়েছেন।

মারা যাওয়া মোর্শেদ আলম গত ২১ মে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন এবং ২২ মে রাতে হাসপাতাল থেকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার পথে সদরের শাসনগাছায় তার মৃত্যু হয়। ওইদিনই কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তার নমুনা নেওয়া হয়েছিল, যার রিপোর্টে মঙ্গলবার পজিটিভ এসেছে।