ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সেই কোটিপতি পিয়ন আটক

ঢাকা, বুধবার, ২২ জানুয়ারি ২০২০ | ৮ মাঘ ১৪২৬

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সেই কোটিপতি পিয়ন আটক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ৫:০০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯

print
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সেই কোটিপতি পিয়ন আটক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের ‘কোটিপতি পিয়ন’ ইয়াছিন মিয়াকে অবশেষে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার (৬ ডিসম্বের) ভোরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা ভবনের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক ইয়াছিন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার আতুয়াকান্দি এলাকার মোহন মিয়ার ছেলে।

সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে থানা এলাকা থেকে ইয়াছিনকে আটক করা হয়। তার অফিসের কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় তাকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সম্প্রতি সদর উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে অডিট হওয়ার পর কোটি টাকার ঘাপলার বিষয় নজরে আসে সবার। এরপর গা ঢাকা দেন ইয়াছিন। এ ঘটনায় সদর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০০৬ সালে ইয়াছিন সদর উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে পিয়ন পদে চাকরি পান। এরপর নানা সময়ে তাকে আশুগঞ্জ ও নাসিরনগর উপজেলায় বদলি করা হলেও ঘুরে ফিরে তিনি সদর উপজেলায়ই চাকরি করেন। প্রায় সময়ই অফিসের নকল, তল্লাশি ও রেজিস্ট্রেশন ফিসহ চালানের টাকা সোনালী ব্যাংকে জমা দিতে পাঠানো হতো তাকে। কিছুদিন আগে অফিসিয়াল অডিটে তার বিরুদ্ধে ‘কোটি টাকার ঘাপলা’ প্রকাশ পায়। এরপর গা ঢাকা দেন ইয়াছিন।

অভিযোগ ওঠেছে, ব্যাংকের ভুয়া চালান তৈরি করে তিনি ওই টাকা আত্মসাৎ করেছেন। ইয়াছিনের তিনটি ফ্ল্যাট-বাড়িসহ নামে বেনামে রয়েছে আরও অনেক সম্পত্তি। বিয়েও করেছেন তিনটি। সংসার করেন সব স্ত্রীর সঙ্গেই। পিয়ন হয়ে কীভাবে এত সম্পদের মালিক হলেন তা নিয়ে এখন সবার মনে প্রশ্ন।