হারানো কন্যাকে ১০ বছর পর পেলেন মা

ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

হারানো কন্যাকে ১০ বছর পর পেলেন মা

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৯

print
হারানো কন্যাকে ১০ বছর পর পেলেন মা

প্রায় ১০ বছর পর হারিয়ে যাওয়া মেয়েকে ফিরে পেলেন মা। গতকাল বুধবার দুপুরে আখাউড়া চেকপোস্ট দিয়ে বীথি আক্তারকে (৩০) মায়ের কাছে হস্তান্তর করেছে ত্রিপুরাস্থ ভারতীয় সহকারী কমিশন। মেয়েকে ফিরে পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন মাসহ তার স্বজনরা। এ সময় নোম্যান্স ল্যান্ডে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।

 

মা-মেয়েকে জড়িয়ে ধরে রাখেন দীর্ঘক্ষণ। দুজনের চোখ দিয়ে গড়িয়ে পরে অশ্রু। এ সময় উপস্থিত সবার চোখ ছলছল করে উঠেছিল এই দৃশ্য দেখে।

হারিয়ে যাওয়া বীথি আক্তার, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার হেমায়েত খোন্দকারের মেয়ে। ২০১০ সালে তিনি হারিয়ে যান। বীথি আক্তারের মা সাফিয়া বেগম দৈনিক খোলা কাগজকে জানান, ২০১০ সালে মেয়েকে নিয়ে গাজীপুরে বড় মেয়ের বাসায় বেড়াতে যান।

মানসিকভাবে অসুস্থ বীথি আক্তার সেখান থেকে হারিয়ে যান। এরপর বহু খোঁজাখুঁজি করেও কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি তার। ২০১৭ সালে পুলিশের মাধ্যমে জানতে পারেন তার মেয়ে ভারতে আছেন। পরে এলাকার এক সাংবাদিক ত্রিপুরায় গিয়ে জানতে পারেন, বীথি মানসিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ফিরে এসে তথ্যটি নিকটবর্তী থানায় জানান।

সাফিয়া বেগম বলেন, অনেক প্রক্রিয়া শেষে মেয়েকে ফিরে পেয়েছি। মেয়েকে পেয়ে খুব খুশি লাগছে। তিনি বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশের সরকারের নিকট কৃতজ্ঞা প্রকাশ করেন।

ত্রিপুরায় নিযুক্ত বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার কিরীটি চাকমা বলেন, ২০১২ সালে ত্রিপুরা রাজ্যের ধলা জেলার পুলিশ বীথি আক্তারকে পেয়েছেন। মেয়েটি মানসিকভাবে অসুস্থ হওয়ায় তাকে ত্রিপুরায় মডার্ন সাইক্রিয়াট্রিক হাসপাতালে হস্তান্তর করেন। সেখানেই বীথি চিকিৎসাধীন ছিলেন। বিষয়টি জানতে পেরে বাংলাদেশ সরকারকে জানাই। তারপর বিভিন্ন প্রক্রিয়া শেষে তাকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ২৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল গোলাম কবির, ত্রিপুরায় নিযুক্ত সহকারী হাইকমিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি জাকির হোসেন, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাহমিনা আক্তার রেইনা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজমুল হাসান, নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের নড়াইল জেলা সভাপতি সৈয়দ খাইরুল আলম, আখাউড়া থানার ওসি রসুল আহমেদ নিজামী প্রমুখ।