চাঁদপুরে আড়াই শতাধিক স্কুল ভবন ঝুঁকিপূর্ণ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯ | ৭ কার্তিক ১৪২৬

চাঁদপুরে আড়াই শতাধিক স্কুল ভবন ঝুঁকিপূর্ণ

চাঁদপুর প্রতিনিধি ৯:২১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

print
চাঁদপুরে আড়াই শতাধিক স্কুল ভবন ঝুঁকিপূর্ণ

চাঁদপুরের আট উপজেলায় অড়াই শতাধিক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ। এসব স্কুল ভবনের কোনোটির ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ছে, কোনোটির আবার নড়বড়ে অবস্থা। পরিত্যাক্ত ঘোষণার পর পার হয়ে গেছে কয়েক বছর। তবুও জরাজীর্ণ ভবনের অধিকাংশে চলছে কোমলমতি শিশুদের পাঠদান। এছাড়া এসব স্কুলের কোনো কোনোটিতে আবার খোলা আকাশের নিচে চলছে শিক্ষার্থীদের পাঠদান। এতে এক অজানা আতঙ্কে রয়েছেন অর্ধলক্ষাধিক শিক্ষক ও শিক্ষার্থী।

চাঁদপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, আট উপজেলায় এক হাজার ১৫৬টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ২৭৪টির ভবন জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ।

এর মধ্যে চাঁদপুর সদর উপজেলায় ২৯টি, কচুয়ায় ২৬টি, হাজীগঞ্জে ৪৩টি, হাইমচরে চারটি, শাহরাস্তিতে ২৮টি, ফরিদগঞ্জে ৮০টি, মতলব দক্ষিণে ২৭টি এবং মতলব উত্তর উপজেলায় ৩৭টি জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ ভবন রয়েছে।

মতলব দক্ষিণ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা একেএম শহীদুল হক বলেন, পুরো উপজেলা ঘুরে ১৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পেয়েছি। সেগুলোর তালিকা তৈরি করে জেলা শিক্ষা অফিসে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। অন্য কোনো উপায় না থাকায় এ বিদ্যালয়গুলোতেই এখন পাঠদান চলছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. সাহাব উদ্দিন বলেন, গত বছর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) বরাবর জরাজীর্ণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তালিকা পাঠানোর পর যেগুলোতে বরাদ্দ পাওয়া গেছে সেগুলোর কাজ চলছে। সর্বশেষ চলতি বছরের জুলাই মাসে নতুন করে ২৭৪টি জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ স্কুল ভবনের তালিকা পাঠানো হয়েছে অধিদফতরে। যেসব বিদ্যালয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই ঝুঁকিপূর্ণ সেগুলো আমরা দ্রুত অপসারণের চেষ্টা করছি এবং সেগুলোর ক্লাস বন্ধ রেখে বিকল্প পাঠদানের ব্যবস্থা করছি।