বান্দরবানে সরগরম পশুরহাট

ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯ | ৯ ভাদ্র ১৪২৬

বান্দরবানে সরগরম পশুরহাট

বান্দরবান প্রতিনিধি ২:৪৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০১৯

print
বান্দরবানে সরগরম পশুরহাট

পার্বত্য জেলা বান্দরবানের আদিবাসীদের পালিত গরুকে মোটা তাজাকরণে কোনো ওষুধ খাওয়ানো হয় না, তাই পাহাড়ে বেড়ে ওঠা গরুর চাহিদা সবার। কোরবানির জন্য তাই আদিবাসীদের পালিত গরুর খোঁজে বিভিন্ন দুর্গম পাহাড়ে চষে বেড়াচ্ছে গরুর ক্রেতারা। এদিকে এবার ভারত ও মিয়ানমার থেকে সীমান্ত পথে কোনো গরু জেলায় ঢুকতে পারেনি, তাই স্থানীয় এবং দেশীয় গরুর ওপরই নির্ভর থাকতে হয়েছে ক্রেতাদের।

গত বছরের চেয়ে এবার গরুর দাম অনেক বেশি বলে জানিয়েছেন অনেক ক্রেতা। কারণ হিসেবে বিক্রেতারা বলছেন, চাহিদার তুলনায় বাজারে পর্যাপ্ত সরবরাহ না থাকা এবং লালন-পালন খরচ বেড়ে যাওয়া ও সাম্প্রতিক বন্যায় এবার স্থানীয় গরুর দাম তুলনামূলক বেশি। তারপরও শেষ সময়ে বাজারে বিভিন্ন দামে গরু-ছাগল বেচাকেনা হচ্ছে, আর সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভালো থাকায় ক্রেতা-বিক্রেতাদের সমাগমে জমজমাট হয়ে উঠেছে পশুর হাটগুলো।

বান্দরবান রাজার মাঠে গরু বিক্রয় করতে আসা মো. কবির হোসেন জানান, এবারের সাম্প্রতিক বন্যায় বান্দরবানে বেশ ক্ষতি হয়েছে, আর এ কারণেই অনেক গরুর দাম বেড়ে গেছে।

আরেক গরু বিক্রেতা জামাল হোসেন জানান, এবারে তিনটি গরু বাজারে নিয়ে এসেছি। দাম ১ লাখ ৫০ হাজার থেকে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকার মধ্যে। আশা করি ভালো দামে বিক্রি করতে পারব।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, বান্দরবানে প্রতিটি পশু হাটের নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও সাদা পোশাকে গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা কর্মরত রয়েছেন।