চাঁদপুরে সড়কে গেল মামা-ভাগনিসহ ৩ জনের প্রাণ

ঢাকা, বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ | ১২ আষাঢ় ১৪২৬

চাঁদপুরে সড়কে গেল মামা-ভাগনিসহ ৩ জনের প্রাণ

চাঁদপুর প্রতিনিধি ১:২৭ অপরাহ্ণ, জুন ১১, ২০১৯

print
চাঁদপুরে সড়কে গেল মামা-ভাগনিসহ ৩ জনের প্রাণ

চাঁদপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় মামা-ভাগনিসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এসব ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো দুইজন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে সদর উপজেলার ঘোষেরহাট এলাকায় চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, সকালে সিএনজিচালিত একটি অটোরিকশা হাজীগঞ্জ থেকে চাঁদপুরের দিকে আসার পথে ও পদ্মা পরিবহনের একটি বাস চাঁদপুর থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে ঘোষেরহাট এলাকায় চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কে বাস-অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় অটোরিকশার যাত্রী ব্যাংক কর্মকর্তা এমরান হোসেন (৩৪) ঘটনাস্থলেই নিহত হন ও তাঁর ভাগনি ফাতেমা আক্তারকে (১০) চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ঢাকায় নেওয়ার পথে মারা যায়।

এ ঘটনায় আহত ব্যক্তিরা হলেন- ফরিদগঞ্জ উপজেলার সুবিধপুর ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামের মো. জুয়েল হোসেন (৩৫) ও রতন চন্দ্র শীল (৩০)।

নিহত এমরান হোসেন হাজীগঞ্জ পৌর এলাকার বলাখাল গ্রামের সর্দারবাড়ির মো. তাজুল ইসলামের ছেলে। তিনি গাজীপুরে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের কর্মকর্তা ছিলেন। ফাতেমা একই এলাকার মো. আলমগীর হোসেনের মেয়ে।

এদিকে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সদর উপজেলার মান্দারী এলাকায় চাঁদপুর-কুমিল্লা মহাসড়কে ইটবাহী একটি পিকআপ ভ্যানের চাপায় ঝর্ণা আক্তার (৩২) নামের এক নারী নিহত হন। তিনি সদর উপজেলার শ্রীপুর এলাকার শাহ আলমের স্ত্রী।

চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) হারুনুর রশিদ জানান, আমরা খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছি।